ট্রেন দুর্ঘটনায় মৃত্যু জওয়ানের!

রেল দুর্ঘটনায় মৃত্যুর তিনদিন পর এক এসএসবি জওয়ানের দেহ ফিরল তাঁর মুর্শিদাবাদের বাড়িতে । রবিবার সকালের ওই ঘটনা মুর্শিদাবাদ জেলার ভরতপুর থানার গোপীনাথপুর গ্রামের । পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত জওয়ানের নাম মানিক নন্দী; তাঁর বয় হয়েছিল ৪৫ । তিনি ভরতপুর থানার গোপীনাথপুর গ্রামের বাসিন্দা ছিলেন । এদিন মৃত জওয়ানের দেহ বাড়িতে ফিরতেই গোটা গ্রামে নেমে আসে শোকের ছায়া । গান স্যালুটের মাধমে শেষ বিদায় জানানো হয় তাঁকে ।

মৃতের পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত জওয়ান ২০০১ সালের ১ মার্চ এসএসবি চাকরিতে যোগ দেন । মাসখানেক আগে তিনি একমাসের জন্য ছুটিতে বাড়ি এসেছিলেন । মৃত্যুর আগে অসমে তাঁর পোস্টিং ছিল বলে পরিবারের দাবি । এরপর ছুটি কাটিয়ে গত মঙ্গলবার ফের ট্রেনে চেপে তাঁর নিজস্ব কর্মস্থলে চাকরির জায়গায় যোগ দিতে যাচ্ছিলেন তিনি । কিন্তু বুধবার সন্ধ্যা থেকে পরিবারের লোকজন কোনও মতেই তাঁর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করতে পারছিলেন না বলে জানান । পরে রাতের দিকে যোগাযোগ করা গেলে জওয়ানের মৃত্যু সংবাদ পাওয়া যায় ।

মৃতের দাদা গদাধর দে বলেন, “এসএসবি সূত্রে আমরা যেটা জানতে পারি যে আসামের ছাপারমুখ স্টেশনে ভাই ট্রেন দুর্ঘটনাগ্রস্থ হয় । ওই ট্রেন দুর্ঘটনায় ওঁর মৃত্যু হয়েছে বলে আমাদের জানান হয়েছে । এরপর এদিন এসএসবি’র একটি টিম বাড়িতে দেহ পৌঁছে দেয়” । পরিবার সূত্রে আরও জানা যায়, তিনি ট্রেন থেকে পড়ে গিয়ে মারা যান ।

মৃত জওয়ানের দুই মেয়ে ছাড়াও বাড়িতে স্ত্রী রয়েছেন । মৃতের স্ত্রী বুলু নন্দী বলেন, “মঙ্গলবার রাতে ট্রেনে থাকাকালিন স্বামীর সঙ্গে শেষ কথা হয়েছিল । উনি আমাদের বাড়িতে ভাল করে তালাবন্ধ করে ঘুমিয়ে যাওয়ার জন্য বলেছিলেন” । এদিন গান স্যালুটের মাধ্যমে শেষ শ্রদ্ধা জানানো হয় তাঁকে । চোখের জলে সেনা জওয়ান কে বিদায় জানানো হয় ।

নিউজ টাইম চ্যানেলের খবরটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন।
Inform others ?
Share On Youtube
Show Buttons
Share On Youtube
Hide Buttons
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
Facebook
YouTube