বাংলার মানুষের উৎসাহ দেখে মনে হচ্ছে আমি দিল্লি নয় কলকাতায় আছি: মোদী

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : আজ মহাষষ্ঠী। আনুষ্ঠানিকভাবে শারদোৎসবের সূচনা বৃহস্পতিবার। এদিন ১২টায় কলকাতায় ভার্চুয়ালি পুজো উদবোধন করেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এদিন মোদী বাংলায় বলেন, “প্রথমে আপনাদের সকলকে জানাই দূর্গাপুজো, কালীপূজো ও দীপাবলির আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। বাংলার এই পবিত্র ভূমিতে সকলের মধ্যে আজ আমি আসতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।”

এক নজরে ষষ্ঠীতে মোদী উবাচ

* আমি আজ দিল্লিতে নয়, বাংলায় আপনাদের কাছে আছি। বাংলার লোক আমাকে আজ ডেকেছে তাঁদের মধ্যে।

* দুর্গাপুজো আমাদের একতা ও পূর্ণতার পর্ব। বাংলার দূর্গাপুজো ভারতকে পূর্ণতা ও রঙে ভরিয়ে তোলে। বাংলার ঐতিহাসিক সম্পদ এই পুজো।

* বাংলা থেকে মহৎ লোকের উত্থাপন হয়েছে। রামকৃষ্ণদেব, বিবেকানন্দ, চৈতন্যদেব, আনন্দমইয়ী, অনুকূল ঠাকুর সকল গুরুদের আমি প্রণাম জানাচ্ছি। সাহিত্য ক্ষেত্রে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, বঙ্কিমচন্দ্র ঠাকুর, বিদ্যাসাগর সকলে বাংলাকে পথ দেখিয়েছে, ভারতকে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছে। নেতাজী, শ্যামাপ্রসাদজি, মাস্টারদা সকলকে ভারতের জন্য লড়াই করেছে। বাংলার বীরাঙ্গনা মেয়েদেরও আজ প্রণাম জানাই।

* ভারতমাতার যে ছবি আমরা দেখি তা এই বাংলারই ছেলে অবনীন্দ্রনাথ ঠাকুরের আঁকা। বাংলার মধ্যে একটা তাগিদ আছে, বাঙালিদের উৎসাহ দেশকে প্রগতির রাস্তা দেখিয়েছে। আগামী দিনেও দেশের গর্ব বৃদ্ধি করবে বাংলার মানুষ।

* করোনার মধ্যে দুর্গাপুজো হচ্ছে। সকলে সংযতভাবেই পালন করছে। এটাই তো উচিত। আয়োজন সীমিত হোক, কিন্তু উৎসব অসীম। এটাই তো বাংলার পরিচয়, বাংলার চেতনা। এটাই আসল বাংলা।

* তবে আপনাদের সকলকে অনুরোধ আপনারা মাস্ক পরে, দূরত্ব বজায় রেখে নিয়ম পালন করুন নিষ্ঠা রেখেই।

* দুর্গাকে মেয়ের মতো দেখে বাংলার মানুষ। প্রতিটি মেয়েকে দুর্গার সম্মানে দেখা উচিত। দুর্গা দুঃখহারিনী, দুর্গতিহারিনী। আমাদের উচিত দেশের দুঃখ দূর করা। নারীশক্তির কাছে সেই ক্ষমতা আছে। এটাই বিজেপির সংকল্প। তাই দেশে মহিলারা দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছেন। বিভিন্ন প্রকল্পের মাধ্যমে তাঁদের সাহায্য করা হচ্ছে। বেটি বাঁচাও বেটি পড়াও থেকে তিন তালাক আমরা আমাদের মায়েদের পাশে আছি।

* দেশজুড়ে মহিলাদের ক্ষমতায়ণ করা হয়েছে। কোনও মেয়ের ধর্ষণ বরদাস্ত করা হবে না। আইন আরও কড়া হয়েছে। মহিলাদের সুরক্ষায় সজাগ রয়েছে সরকার।

* বাংলা ভাষা এত সুমধুর। আমি জানি উচ্চারণে একটু কমতি থেকে যায়। কিন্তু তাও বাংলা বলার থেকে নিজেকে রুখতে পারলাম না। আমি গর্বিত আজ সকলের সঙ্গে থাকতে পেরে।

প্রসঙ্গত, পঞ্চমীর রাতে বাংলায় টুইট করে নমোর আর্জি ‘‘সঙ্গে থাকবেন’’। ‘‘শারদীয়ার শুভেচ্ছা জানাবো ও পুজোর আনন্দ একসাথে ভাগ করে নেব’’-র কথা বললেও দুর্গাপুজো থেকেই বাংলায় বিধানসভা ভোটের কার্যত দামামা বাজাতে চলেছেন মোদী, এমনটাই মনে করছেন রাজনীতির কারবারীদের একাংশ।

ঠিক কী লিখেছেন প্রধানমন্ত্রী?

মোদীর টুইট, ‘‘দুর্গাপূজা, অশুভের পরাজয় ও শুভে’র বিজয়ের এক পবিত্র উৎসব। মা দুর্গার কাছে শক্তি, আনন্দ ও সুস্বাস্থ্যের আশীর্বাদ প্রার্থনা করি। আগামী কাল বাঙালির প্রিয় দুর্গোৎসবের মহাষষ্ঠী। এই বিশেষ দিনটিতে, আগামী কাল দুপুর ১২টায়, পশ্চিমবঙ্গে আমার সমস্ত ভাই-বোনেদের শারদীয়ার শুভেচ্ছা জানাবো ও পুজোর আনন্দ একসাথে ভাগ করে নেব | সঙ্গে থাকবেন’’। (বানান অপরিবর্তিত)

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons