‘গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য ক্ষতিগ্রস্ত’, রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব বিরোধীদের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : ‘নিয়মবিরুদ্ধ’ কাজের জন্য আগেই রুলবুক দেখানোর চেষ্টা করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ ডেরেক ও’ব্রায়েন। এবার রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান হরিবংশ নারায়ণ সিংয়ের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনল বিরোধী দলগুলি।

কংগ্রেসের রাজ্যসভার সাংসদ আহমেদ প্যাটেল বলেন, ‘ওঁনার (রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান) গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য রক্ষা করা উচিত। কিন্তু তার পরিবর্তে আজ ওঁনার যে হাবভাব ছিল, তাতে গণতান্ত্রিক ঐতিহ্য ও প্রক্রিয়া ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাই তাঁর বিরুদ্ধে আমরা অনাস্থা প্রস্তাব আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’

রবিবার দু’টি কৃষি বিল নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে ওঠে রাজ্যসভা। বিল দুটি সংসদের সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানোর দাবি তোলেন বিরোধীরা। সেই হই-হট্টগোলের মধ্যেই করোনা পরিস্থিতিতে রাজ্যসভার অধিবেশনের নির্ধারিত সময় তথা দুপুর একটা পেরিয়ে যায়। আগামিকাল (সোমবার) পর্যন্ত কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র সিং তোমরের জবাব স্থগিত রাখার আর্জি জানান বিরোধীরা। কিন্তু সেই আর্জি খারিজ করে দেন হরিবংশ। যিনি সেই সময়ে রাজ্যসভার সভাপতিত্ব করছিলেন। তারইমধ্যে বিলদুটি সংসদের সিলেক্ট কমিটিতে পাঠানোর যে প্রস্তাব উত্থাপন করা হয়েছিল, তা গৃহীত না হওয়ায় বিরোধীরা সংসদের উচ্চকক্ষে রীতিমতো হাঙ্গামা শুরু করেন।

‘নিয়মবিরুদ্ধ’ কাজের জন্য ওয়েলে হট্টগোল করতে থাকেন বিরোধীরা। রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যানকে রুল বুক দেখানোর চেষ্টা করেন ডেরেক। তাঁকে সরিয়ে দেন রাজ্যসভার মার্শাল। সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, সরকারি নথি ছিঁড়ে দেন কয়েকজন। হরিবংশকে হেনস্থার চেষ্টা করা হয়। সেই পরিস্থিতিতে রাজ্যসভার মাইক বন্ধ করে দেওয়া হয়। কিছুক্ষণের জন্য অধিবেশন মুলতুবি করে দেওয়া হয়।

তারপর ফের অধিবেশন শুরু হলে বিরোধীদের তুমুল স্লোগান সত্ত্বেও ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে যায় দুটি বিল। কিন্তু বিল পাশের প্রতিবাদের রাজ্যসভার কক্ষ ছেড়ে যেতে অস্বীকার করেন বিরোধী নেতারা। তাঁরা রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেন। তারপর ফের অধিবেশন শুরু হলে বিরোধীদের তুমুল স্লোগান সত্ত্বেও ধ্বনি ভোটে পাশ হয়ে যায় দুটি বিল।

সূত্রের খবর, এখন উপ-রাষ্ট্রপতি তথা রাজ্যসভার চেয়ারম্যান বেঙ্কাইয়া নাইডুর বাসভবনে বৈঠকে বসেছেন রাজ্যসভার ডেপুটি চেয়ারম্যান, সংসদীয় বিষয়কমন্ত্রী প্রহ্লাদ জোশী এবং রাজ্যসভার ডেপুটি নেতা পীযূষ গোয়েল।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons