কমাতে হবে ভিড়, ১০০ টাকা এন্ট্রি ফি দিলেই তবেই ঢোকা যাবে শপিং মলে

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : দেশের আর্থনীতির কথা মাথায় রেখে পঞ্চম দফার লকডাউন তথা প্রথম দফার আনলক পর্যায়ে এক এক করে সব ক্ষেত্রেই মিলছে ছাড়। অত্যাবশ্যকীয় পণ্য ও পরিষেবা গুলি লকডাউনের প্রথম দিন থেকে খোলা থাকলেও তৃতীয় দফার লকডাউনে এক এক করে একাধিক ক্ষেত্রে ছাড়পত্র দেয় রাজ্যের প্রশাসন। এবার পঞ্চম দফার লকডাউনে নতুন করে রাজ্যের বিভিন্ন প্রাম্তে শপিং মল খোলার অনুমতি মিলল সরকারের তরফে। কিন্তু শপিং মল খুললে সেখানে লোকজনের ভিড়ও বাড়বে। ফলে সংক্রমণের সংখ্যাও বাড়তে পারে। এবার সেই আশঙ্কায় শপিং মল খোলার ক্ষেত্রে এক বিশেষ পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে একাধিক শপিং মল কর্তৃপক্ষের তরফে। 

জনসাধারণের সুরক্ষার দিকটি মাথায় রেখেই এবার মলে ঢুকতে টিকিটের ব্যবস্থা করেছে আসানসোল ও নরেন্দ্রপুরের মতো শপিং মলগুলি। মলে ঢুকলেই এবার মাথাপিছু ১০০ টাকা করে দিতে হবে সকলকে। মূলত মলে ভিড় কমাতেই এমন উদ্যয়োগ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

শপিং মলে বাজার করতে আসা মানুষদের পাশাপাশি এমন অনেকেই রয়েছেন যারা আড্ডা দিতে বা উইনডো শপিংয়ের জন্য আসেন। এবার সেই অতিরিক্ত ভিড় কম করতেই ১০০ টাকা করে কুপনের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এর পাশাপাশি শপিং মলের কর্মী সহ ক্রেতাদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে স্যানিটাইজেশন, সোশ্যাল ডিসট্যান্সের সব নিয়ম মেনে চলতে হবে। এগুলি ছাড়াও আরও বেশ কিছু ক্ষেত্রে রয়েছে রড়া নিয়মনীতি। সেগুলি হলঃ

  • মলে ঢোকার আগে ক্রেতা থেকে শুরু করে তাঁদের গাড়ি সবকিছুই স্যানিটাইজ করা হচ্ছে।
  • থার্মাল গান দিয়ে তাপমাত্রা মেপে তা স্বাভাবিক থাকলে তবেই ক্রেতাদের মলের ভেতরে প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হচ্ছে।
  • একটি লিফট তিনজনের বেশি একবারে ব্যবহার করার ক্ষেত্রে রয়েছে নিষেধাজ্ঞা।
  • মলের সর্বত্রই মেনে চলতে হবে সামাজিক দূরত্ব। এমনকি এবিষয়ে সর্বত্র পোস্টারও লাগানো থাকবে।
  • এক্সেলেটর ব্যবহারের ক্ষেত্রেও মেনে চলতে হবে প্রয়োজনীয় দূরত্ব।
  • সর্বতক্ষন মলের সমস্ত অংশ স্যানিটাইজ করা হচ্ছে।
  • শপিং মলের সমস্ত কর্মীদের নিয়মিত কোভিড পরীক্ষা করা হচ্ছে। যাদের রিপোর্ট পজেটিভ তাঁদের হাতে সবুজ ব্যান্ড পরিয়ে দেওয়া হচ্ছে।
 

Inform others ?

হয়তো আপনার চোখ এড়িয়ে গেছে !

Show Buttons
Hide Buttons