ফের করোনা নিয়ে তথ্যগোপনের অভিযোগ, ট্যুইটে বিস্ফোরক রাজ্যপাল

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : বাংলার করোনা পরিস্থিতি নিয়ে একাধিকবার মুখ খুলতে দেখা গিয়েছে বিরোধীদের। বিশেষ করে এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা মমতা সরকার গোপন করছে বলে বারে বাসে সরব হতে দেখা গিয়েছে বিরোধী নেতৃত্বদের। এমনকি করোনা পরীক্ষা প্রয়োজনের তুলনায় অনেক কম হচ্ছে বলেও দাবি করা হয়েছে। এবার সেই একই বিষয়ে সুর চড়াতে শোনা গেল রাজ্যপাল জগদীপ ধনকড়কে। সোমবার সকালে করোনা প্রসঙ্গে পরপর দুটি ট্যুইট করেন রাজ্যপাল। 

প্রথম ট্যুইটে তিনি ডেরেক ও ব্রায়েনকে সরাসরি প্রশ্ন করেন, “আমি ডেরেক ও ব্রায়েনের কাছে জানতে চাই রাজ্যে এখনও পর্যন্ত পরীক্ষার রিপোর্ট এখনো প্রকাশিত হয়নি? মুখ্যসচিবের সঙ্গে বৈঠকের সময় জানিয়েছিলাম সংখ্যাটা ৪০ হাজারেরও বেশি হবে। যা যথেষ্টই উদ্বেগের বিষয়। রিপোর্ট আসতে দেরি হলে টেস্ট করার উদ্দেশ্যই যে সফল হবে না।”

রবিবার স্বাস্থ্যভবন সুত্রে পাওয়া খবর অনুসারে রাজ্যে ২৪ ঘন্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৩৭১। এছাড়া রবিবার মোট নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৯৩৫৪ জনের। যা এখনও পর্যন্ত সর্বোচ্চ। রবিবার পর্যন্ত রাজ্যে মোট করোনা পরিক্ষা হয়েছে ২ লক্ষ ৩ হাজার ৭৫১ জনের। পরীক্ষার জন্য মোট ৪০ টি ল্যাবরেটরি তৈরি করা হয়েছে। করোনা পরীক্ষাতে কোনরকম খামতি রাখা হচ্ছেনা বলেই দাবি করেছে রাজ্য সরকার। কিন্তু এদিন সেবিষয়েই ফের রাজ্য সরকারকে বিঁধতে দেখা গেল রাজ্যপালকে। 

এদিন দ্বিতীয় ট্যুইটে ধনকড় লেখেন, “গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুমাত্র ৩৭১ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এই সমস্ত তথ্য দিয়ে রাজ্য সরকার সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। তাতে কারও ভাল হবে না। কঠিন সময়ে এসব করবেন না। সময়োপযোগী সঠিক তথ্য পরিবেশনই হলো মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির মূল উপায় কারণ লকডাউন পরবর্তী সময়ে তাঁদের আরো বেশি সাবধানতা অবলম্বন করা প্রয়োজন।”

এর আগেও একাধিক বিষয় নিয়ে রাজ্যের প্রশাসনিক প্রধান এবং সাংবিধানিক প্রধানের মধ্যে দ্বন্দ্ব প্রকাশ পেয়েছে। বিভিন্ন বিষয়ে রাজ্য সরকারের বিরোধীতাও করেছেন রাজ্যপাল। এবার ফের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে রাজ্যকে বিঁধলেন ধনকড়। যার জেরে নবান্ন-রাজভবন সম্পর্কে বেশ খানিকটা অবনতি ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

 

 

Inform others ?

হয়তো আপনার চোখ এড়িয়ে গেছে !

Show Buttons
Hide Buttons