কবে হবে কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা? জানালেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : করোনার জেরে আগামী ১০ জুন পর্যন্ত রাজ্যের সমস্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় সরকারের তরফে। কিন্তু করোনার পর আমফানের জেরে ব্যপকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয় রাজ্যের একাধিক এলাকা। তার ফলে ফের পিছিয়ে দেওয়া হয় স্কুল-কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দিন। যার জেরে কলোজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষাগুলি কবে হবে নিয়ে রীতিমতো জল্পনা শুরু হয়। শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠকে সেবিষয়ে এবার মুখ খুললেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। শিক্ষামন্ত্রী আগেই জানিয়েছিলেন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষার সূচি ঠিক করা হবে বিশ্ববিদ্যালয়গুলির তরফেই। তবে এদিন উপাচার্য পরিষদ বৈঠকে বসেছে বলেও জানান তিনি। একইসাথে এদিন বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে আমফানের জেরে গাছ ভেঙে পড়ায় দুঃখ প্রকাশ করার পাশাপাশি আবার নতুন করে গাছ লাগানোর জন্যও আবেদন জানান।

করোনা সংক্রমণ রুখতে ২৫ মার্চ থেকে জারি হয়েছে দেশজুড়ে লকডাউন। যার জেরে বন্ধ রাখা হয়েছে স্কুল-কলেজ থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়। তবে পড়ুয়াদের জন্য অনলাইন ক্লাসের ব্যবস্থা করে হয়েছে। কিন্তু এই পরিস্থিতিতে কবে পরীক্ষা নেওয়া হবে তা নিয়ে উঠছে নানান প্রশ্ন। লকডাউনের শুরুর দিকে মুখ্যমন্ত্রী জানিয়েছিলেন ফাইনাল সেমেস্টারের ছাড়া স্নাতক বা স্নাতকোত্তরের বিভিন্ন সেমেস্টারের পড়ুয়াদের কোন পরীক্ষা নেওয়া হবেনা। আমফানের জেরে ১০ জুন থেকে বাড়িয়ে ৩০ জুন পর্যন্ত স্কুলগুলি বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত জানিয়েছেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় ক্ষেত্রে এই সিদ্ধান্ত সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ নেবে বলে জানিয়েছেন তিনি। 

এদিন পার্থবাবু বিরোধীদের একহাত নিয়ে বলেন, “অনেকেই ঘোলা জলে মাছ ধরতে নেমেছেন। রাজ্যের ভাল কাজের কোনও প্রশংসা নেই। শুধু মিথ্যা প্রচার করে যাচ্ছে।” পার্থবাবুর আক্ষেপ, “কয়েকজন রাজ্যে কত গাছ পড়ল স্রেফ তার হিসেব কষছেন। কিন্তু কতজন মানুষ মারা গেলেন, তাদের পাশে কীভাবে দাঁড়ানো যায়, তা নিয়ে বিরোধীদের মাথাব্যথাই নেই।”

 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons