প্রধানমন্ত্রীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সে ক্ষোভ উগরে দিলেন মমতা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : সোমবার প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে পঞ্চম দফার বৈঠকে পুঞ্জীভূত ক্ষোভ উগরে দিলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী। তিনি অভিযোগ করেন যুক্ত রাষ্ট্রীয় কাঠামো মানছেনা কেন্দ্র। রাজ্যকে না জানিয়েই নেওয়া হচ্ছে একের পর এক সিদ্ধান্ত। 

এই বৈঠকে তিনি বলেন, পশ্চিমবঙ্গ সংবেদনশীল রাজ্য। একাধিক রাজ্য ও দেশের সীমানার সাথে যুক্ত। ফলে এই রাজ্যে করোনা পরিস্থিতির সুষ্ঠ পরিচালনের বিশেষ প্রয়োজন। এই অবস্থায় কেন্দ্র ও রাজ্যকে রাজনীতির উর্দ্ধে উঠে একযোগে কাজ করতে হবে। যা কেন্দ্রের চিঠি রাজ্যকে পাঠানোর আগে প্রকাশ করে দেওয়ার মধ্যে প্রকাশ পায়না। 

মুখ্যমন্ত্রী জানান, জিএসটি সহ ৬১ হাজার কোটি টাকা পাওনা আছে কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের। তা দ্রুত মিটিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করুক কেন্দ্র।

এছাড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের বিষয়েও কথা বলেন তিনি। জানান, রাজ্যে আটকে পড়া পরিযায়ী শ্রমিকদের দেখভাল করছে সরকার। সংক্রমণ রুখতে রেল পরিষেবা চালু করার কাজও করা হচ্ছে অত্যন্ত সতর্কতার সাথে।

রাজ্যে পাঠানো হয় ত্রুটিপূর্ণ কিট, সেই নিয়েও বৈঠকে সরব হন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি জানান, রাজ্যে বর্তমানে পরীক্ষাকেন্দ্রের সংখ্যা ৮। এত কম সংখ্যক পরীক্ষাকেন্দ্র ও ত্রুটিপূর্ণ কিট পাওয়া সত্বেও অন্যান্য রাজ্যের তুলনায় পশ্চিমবঙ্গের পরিস্থিতি অনেক ভালো। রাজ্যে বর্তমানে আক্রান্তের হার প্রতি ১০ কোটিতে ২০০ জন। 

সুত্রের খবর, লকডাউন নিয়েও বৈঠকে প্রশ্ন তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, লকডাউনের স্বাধীনতা রাজ্যের ওপর ছেড়ে দেওয়া উচিত। কারণ রাজ্যের অবস্থা সম্পর্কে কেন্দ্রের তুলনায় রাজ্য বিশেষ অবগত। এমনকি পরিযায়ী শ্রমিকদের রেল ভাড়া দেওয়ার প্রস্তাবও দেন তিনি।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons