পশ্চিমবঙ্গের যে যে রাজ্যগুলির করোনা প্রকোপ কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলছে

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : কলকাতা, উত্তর ২৪ পরগণা, হাওড়া ও হুগলিতে তুলনামূলক ভাবে অন্য জেলাগুলির তুলনায় করোনা আক্রান্তের বৃদ্ধির হার অনেকটাই বেশি। তবে অনেকটা স্বস্তিতে রেড জোন বলে ঘোষিত পূর্ব মেদিনীপুর। সরকারি তথ্য অনুযায়ী রবিবার পর্যন্ত মহানগরে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৯৪৮। সাত দিন আগে এই সংখ্যাটা ছিল ৬৫৯। এদিকে হাওড়া ও হুগলিতে করোনা সংক্রমণ উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে। ঝাড়গ্রাম ও উত্তর দিনাজপুরেও নতুন করে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এখনও রাজ্যের পাঁচ জেলা করোনামুক্ত রয়েছে।

রাজ্য় স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী হাওড়া ও হুগলিতে সংক্রমণের হার অনেকটাই বেশি। একদিনে হাওড়ায় করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৪৭ জন। শনিবার ছিল ৩৭০ জন। রবিবার তা দাঁড়িয়েছে ৪১৭-এ। যেখানে সাত দিন আগে সংখ্যাটা ছিল ২৪১। অন্য দিকে হুগলিতেও পরিস্থিতি আরও ঘোরালো হয়ে উঠেছে। সেখানে একদিনে আক্রান্তের সংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে ৪৯ জন। শনিবার আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭১।  রবিবার ওই সংখ্যাটা গিয়ে দাঁড়ায় ১২০-তে। ওই জেলায় ৪ মে সংখ্যাটা ছিল ৪১। স্বভাবতই রাজ্য প্রশাসন এই দুই জেলা নিয়ে চিন্তিত। এই দুই জেলায় ক্রমশ কনটেইনমেন্ট জোনের সংখ্যাও বাড়ছে।

 

মহানগরে ৪ মে অর্থা ৭দিন আগে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৬৫৯। রবিবার সেই সংখ্যা দাঁড়ায় ৯৪৮-তে। শনিবার সংখ্যাটা ছিল ৯১১। কলকাতায় একদিনে ৩৭ জন আক্রান্ত হয়েছে। জানা গিয়েছে, কলকাতা, হাওড়া ও হুগলি এই তিন জেলায় করোনা সংক্রমণের ঘটনায় উদ্বিগ্ন স্বাস্থ্য দফতর। উত্তর ২৪ পরগাণায় ৭দিনের মধ্যে করোনা সংক্রমণ বেড়েছে ৭৩ জনের। বাকি তিন জেলার থেকে সংক্রমণ বৃদ্ধির হার এই জেলায় তুলনামূলক ভাবে কম। রেড জোন হিসাবে ঘোষিত পূর্ব মেদিনীপুর তুলনামূলক ভাবে ভাল অবস্থায় রয়েছে। একদিনে নতুন করে কেউ আক্রান্ত হয়নি। ৭দিনে এই জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েছে ৮। ৪ মে ছিল ৩৬, রবিবার সংখ্যাটা দাঁড়ায় ৪৪-এ।

প্রথমে রেড জোন হিসাবে ঘোষণা করা হয়েছিল কলকাতা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগণা ও পূর্ব মেদিনীপুর জেলাকে। এই চার জেলার মধ্যে কলকাতা ও হাওড়া জেলায় করোনা সংক্রমণের সংখ্যা ক্রমশ বাড়ছে। তুলনামূলক ভাবে পূর্ব মেদিনীপুর ও উত্তর ২৪ পরগণার পরিস্থিতি একটু স্বস্তিদায়ক। তবে নতুন করে হুগলি জেলা মাথা ব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে স্বাস্থ্য দফতরের। অন্য দিকে গ্রিণ জোনের দুই জেলায় নতুন করে করোনা সংক্রমণ ঘটেছে। ঝাড়গ্রাম ও উত্তর দিনাজপুর। তবে এখনও করোনা শূন্য রয়েছে আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, দক্ষিণ দিনাজপুর, বাঁকুড়া ও পুরুলিয়া।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons