করোনার থাবা এবার যৌনপল্লীতে, চিন্তায় ঘুম উড়েছে যৌনকর্মীদের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : কমছে খদ্দেরের আনাগোনা। করোনা আতঙ্কের জেরে এবার পকেটে টান পড়তে শুরু করেছে বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের যৌনকর্মীদের। এখানে প্রায় ২০০ যৌনকর্মী রয়েছেন। তাদের রুটি রুজিতে টান পাড়ায় কীভাবে বাকি দিনগুলি কাটাবেন তা নিয়েই তাদের কপালে পড়েছে চিন্তার ভাঁজ। 

মারণ ভাইরাস করোনা সংক্রমণ এড়াতে দেশ জুড়ে শুরু হয়েছে নানা সতর্কতা। আর সেই সাবধানতা অবলম্বন করতে গিয়েই পেটে টান পড়েছে প্রাচীণ এই যৌনপল্লীর যৌনকর্মীদের। এবিষয়ে সেখানকার এক যৌনকর্মী বলেন, করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে এক ধক্কায় অনেকটাই কলে গিয়েছে খদ্দেরের সংখ্যা। ফলে আমাদের সংসার চালানো দায় হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে করোনাকে এড়িয়েও যারা এখানে আসছেন তাঁদের জন্য মাস্ক ও হাত ধোয়ারও ব্যবস্থা করা হচ্ছে।

অন্য এক যৌনকর্মীর কথায়, খদ্দের না আসায় সমস্যা তো হচ্ছেই কিন্তু তাও আমরা যতটা সম্ভব সতর্ক থাকার চেষ্টা করছি। একইসাথে তিনি যৌনকর্মীদের জন্য অত্যাধুনিক মাস্ক ও চিকিৎসা পরিষেবা নিয়ে প্রশাসনের সহায়তাও চেয়েছেন।

করোন সংক্রমণ ঠেকাতে একদিকে যেমন যৌনপল্লীতে ভিন রাজ্য থেকে আসা যৌনকর্মীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছেনা একইভাবে কোন অপরিচিত খদ্দেরকেও আসতে নিষেধ করা হচ্ছে। এদিন এমনটাই জানিয়েছেন র্বার মহিলা সমন্বয় সমিতির ফিল্ড কো-অর্ডিনেটর বন্দনা মজুমদার। তবে এই ভাইরাস থেকে সতর্কতা অবলম্বন করতে ঠিক কী কী পদক্ষেপ নেওয়া জরুরি তা এখনও পর্যন্ত প্রশাসনের তরফে তাদের কাছে এসে জানানো হয়নি বলেও দাবি করেন তিনি। 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons