উচ্চমাধ্যমিক প্রশ্ন ফাঁস রুখতে কড়া পদক্ষেপ উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের আজব ফরমান। প্রশ্ন ফাঁস রুখতে এবার সাংবাদিকদের সুত্র জানাতে হবে সংসদ সভাপতিকে। সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানালেন সংসদ সভাপতির। পরীক্ষা চলারকালীন প্রশ্ন পত্রের প্রতিলিপি কোন সাংবাদিকের হাতে এলে কোথা থেকে তা পাওয়া গেল ‌জানাতে হবে সভাপতিকে, তবেই মিলবে প্রতিক্রিয়া। ভরা প্রেস কনফারেন্সে নিদান সভাপতির।

মাধ্যমিকের পর এবার উচ্চমাধ্যমিকে কড়া নিরাপত্তার স্বার্থে একাধিক পদক্ষেপ গ্রহন করতে চলেছে মধ্যশিক্ষা পর্ষদ। ১২ মার্চ থেকে শুরু হচ্ছে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা।  চলতি বর্ষে এই পরীক্ষায় শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে তথা প্রশ্নপত্র ফাঁস ও টুকলি রুখতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই পড়ু‌যেদের কোথায় কোথায় সিট পড়েছে তা জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে পরীক্ষার হলে মোবাইল ও টুকলি নিয়ে ঢোকার ক্ষেত্রে জারি হয়েছে কড়া নিরাপত্তা। মধ্যশিক্ষা পর্ষদের নির্দেশ, ‌কোন পরীক্ষার্থী মোবারল নিয়ে পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করছে কিনা তা দেখার জন্য প্রতিটি ভেন্যুতে একজন করে নমিনি কাউন্সেলর ও ভেন্যু অবসার্ভার থাকবেন। এছাড়া কোন পরীক্ষার্থার কাছে মোবাইল রয়েছে কী না তা নিশ্চিত করতে প্রয়োজনে  ব্যবহার করা হতে পারে মেটাল ডিটেক্টর ।

তবে শুধুমাত্র ভেনুতেই অবসার্ভার  থাকবেন তা নয়। প্রতিটি পরীক্ষা কক্ষে কোন সমস‍্যা ও টুকলি রুখতে থাকবেন একজন করে চিফ ইনভিজলেটর। এবং অবশেষে কোন পরীক্ষার্থার কাছে মোবাইল নেই তা নিশ্চিত করে তবেই দেওয়া হবে প্রশ্নপত্র। এক্ষেত্রে ‌যদি কেউ মোবাইল নিয়ে পরীক্ষার হলে ধরা পড়ে, তাহলে সেদিনের মতো বাতিল করা হবে তাঁর পরীক্ষা। এছাড়া টুকলি করতে গিয়ে ধরা পড়লে তাকে আর কোন পরীক্ষাতের বসতে দেওয়া হবেনা। এমনকি বাতিল পর্যন্ত করা হবে তার রেজিস্ট্রেশন।

এক সাংবাদিক বৈঠকে মধ্যশিক্ষা পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে, নারাপত্তা আরও জোরদার করতে পরীক্ষার ১ ঘন্টা পূর্ন না হওয়া প‌‌র্যন্ত কোন পরীক্ষার্থী শৌচালয়ে ‌যেতে পারবেনা।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons