প্রেমের ‘শাস্তি’, ন্যাড়া করে গণধোলাই ‌‌যুবককে

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : প্রেমিকার সঙ্গে দেখা করতে ‌গিয়ে বেধড়ক মারধর খেলেন ‌যুবক। তবে শুধু মারধরই নয়, এদিন তাঁর চুলও কেটে দেওয়া হয় বলে অভি‌যোগ। ঘটনাটি ঘটেছে পূর্ব বর্ধমানের ভাতারে। এরপরেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে ওই এলাকা।

জানা গিয়েছে, ওই ‌যুবকের বাড়ি কাটোয়া রাজোয়া গ্রামে। পূর্ব বর্ধমানের ভাতারের বাসিন্দা এক মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে আবদ্ধ হন তিনি। পরীক্ষার দিনকয়েক আগে ওই ‌প্রামিকের সাথে  পালিয়ে ‌যায় ওই নাবালিকা। কিন্তু ফের মেয়েকে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়ে আসেন পরিবারের সদস্যরা। কিন্তু তা সত্ত্বেও ওই ‌যুবকের সাথে ভেতরে ভেতরে ‌যোগা‌যোগ রাখে ওই নাবালিকা। এমনকি পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রমিকার সাথে দেখা করতেও ‌যান ওই ‌যবুক। কিন্তু সেখানে এই ‌যুগলকে দেখে ফেলেন স্থানীয় কয়েকজন। সেখান থেকেই ওই ‌যুবককে জোর করে তৃণমূলের একটি কার্যালয়ে নিয়ে ‌যাওয়া হয়।  এবং সেখানেই তাঁকে বেধড়ক মারধর করে মাথার চুল কেটে ফেলা হয় বলে অভি‌যোগ। এমনকি ঘুঁটের মালা পরিয়ে পাশের গ্রামে তাঁকে ঘোরানোর পরিকল্পনা করে অভিযুক্তরা।

পরিস্থিতি খারাপ দেখে ওই এলাকা থেকেই এক ‌যুবক পুলিশে খবর দেন। সাথে সাথেই ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয় ভাতার থানার পুলিশ। ওই প্রেমিক ‌যুবককে সেখান থেকে উদ্ধার করে ৪ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এরপরেই স্থানীয় ও তৃণমূল নেতৃত্বের একাংশ দলীয় পতাকা হাতে বর্ধমান-কাটোয়াগামী সড়ক অবরোধ করে আটককারীদের মুক্তির দাবিতে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন।

পুলিশ সূত্রে জানানো হয়েছে, ধৃতদের বিরুদ্ধে যুবককে মারধর ও অবরোধ-এর জন্য দুটি পৃথক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর প্রায় অনেকটা সময় কেটে গিয়েছে। কিন্তু এখনও ‌যেন একেবারে থমথমে হয়ে রয়েছে  ওই এলাকা।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons