প্রতিটি সিরেজের আগে ক্রিকেটারদের করোনা পরীক্ষা হোক, প্রস্তাব শামির

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : বর্তমানে দেশজুড়ে চলছে চতুর্থ দফার লকডাউন। এই পরিস্থিতিতে বেশ কিছু ক্ষেত্রের মতো ছাড় মিলেছে ক্রিড়া ক্ষেত্রেও। ৪.০ দফার লকডাউনে খুলে দেওয়া হয়েছে স্টেডিয়ামগুলি। ক্রিকেট থেকে শুরু করে সমস্ত ক্রিড়া তারকাদের অনুশীলনের ক্ষেত্রেও মিলেছে ছাড়পত্র। কিন্তু করোনা পরবর্তী পরিস্থিতিতে যখন মাঠে নামবেন ক্রিকেটাররা তখন তাঁদের সুরক্ষার কথা্ চিন্তা করে ঠিক কী ব্যবস্থা্ নেওয়া হবে, এখন তা নিয়েই শুরু হয়েছে নানান জল্পনা। তাই সেদিকটি বিবেচনা করেই আইসিসি-এর তরফে বেশ কিছু নতুন নিয়ম তৈরি করা হয়েছে। যার ফলে বাইশ গজে নামার আগে আবার নতুন করে পরীক্ষার সম্মুখীন হতে হবে ক্রিকেটারদের। এদিন মহম্মদ শামি জানান কোভিড-১৯ থেকে শুরু করে সমস্ত পরীক্ষার জন্যই তিনি প্রস্তুত। 

আগামীতে নিজেদের সুরক্ষার কথা চিন্তা করে ক্রিকেটারদের মাঠে নামার পরেও একাধিক বিধিনিষেধ মেনে চলতে হবে। এবিষয়ে এক সাক্ষাৎকারে ভারতীয় পেসার মহম্মদ শামি বলেন, “জানি, মাঠে বেশ কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হবে। বলে থুতুর ব্যবহার করা যাবে না। সেলিব্রেশন আর দর্শকদের জন্যও চালু হচ্ছে নতুন নিয়ম। দেখুন, আমরা যখন জানি সামাজিক দূরত্ব মেনে একটা বড় সংকটের সঙ্গে লড়াই করতে হবে, তখন এই সমস্ত গাইডলাইন মেনে চলতেই হবে।”

প্রতিটি সিরিজের আগে প্রত্যেক ক্রিকেটারেরই করোনা পরীক্ষা প্রসঙ্গে এদিন শামি বলেন, “আমরা একটা পরিবার। দল বেঁধে ঐক্যবদ্ধভাবে ম্যাচ খেলি। তাই আমার মনে হয় প্রত্যেকটা সিরিজের আগে আমাদের করোনা টেস্ট হলে সকলে ক্লিন চিট পেয়ে নিশ্চিন্তে খেলতে পারব। এতে একে অপরের কাছে যেতে হলে কোনরকম ভয় কাজ করবেনা। ইতস্ততও করতে হবে না। আমার মনে হয় সবার জন্যই ইতিবাচক হবে।”

চতুর্থ দফায় লকডাউন জারির পর কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের তরফে সাফ জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, স্টেডিয়াম খোলা হবে এবং খেলাও হবে। কিন্তু কোন দর্শকের উপস্থিতিকে অনুমতি দেওয়া হবেনা। সেবিষয়েও এদিন মুখ খুললেন শামি। তাঁর কথায়, “কোনও ম্যাচে সমর্থকরা প্রচুর মোটিভেট করে। তাঁদের সমর্থন বেশ উৎসাহ জোগায়। কিন্তু যদি দর্শকশূন্য ম্যাচ করাটাই গুরুত্বপূর্ণ হয়, তাহলে মনে হয় না এ বিষয়ে কারও কোনও আপত্তি থাকবে। তবে সামাজিক দূরত্ব মেনে বসিয়ে, মাস্ক-গ্লাভস বাধ্যতামূলক করেও মাঠে সমর্থকদের ফেরানো যেতে পারে।”

 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons