“মানুষকে বিপদে ফেলছে আপনার আচরণ”, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি বিজেপি নেতার

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : যেভাবে সারা দেশের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে পশ্চিমবঙ্গেও  করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়াচ্ছে তাতে এই পরিস্থিতিতে কলকাতার মেট্রো পরিষেবা চালু করার প্রস্তাব এককথায় যেচে বিপদ ডেকে আনা, মনে করছে রাজ্য বিজেপি। সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়  জানান যে ১ জুলাই থেকে মেট্রো পরিষেবা যাতে চালু করা যায় সেবিষয়ে বিবেচনা করছেন তিনি। যদিও মেট্রো কর্তৃপক্ষ সেই প্রস্তাব নাকচ করে দেওয়ায় আপাতত বন্ধই রয়েছে শহরের পাতাল রেল পরিষেবা। মুখ্যমন্ত্রীর মেট্রো চালানোর ভাবনাকে পুনর্বিবেচনা করার অনুরোধ করে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই খোলা চিঠি লিখলেন বিজেপির সহ-সভাপতি রীতেশ তিওয়ারি। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে পুরোপুরি লকডাউনের পথে প্রথমে হাঁটে কেন্দ্রীয় সরকার। বর্তমানে যদিও ধীরে ধীরে আনলক পর্যায়ের মধ্যে দিয়ে চলেছে দেশ তবুও এখনও কোথাও মেট্রো পরিষেবা চালু করা হয়নি।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্দেশে তাঁর খোলা চিঠিতে রাজ্য বিজেপির সহ-সভাপতি রীতেশ তিওয়ারি লেখেন, মেট্রো কর্তৃপক্ষের উপর চাপ সৃষ্টি করে মেট্রো পরিষেবা চালু করার ভাবনাটি আসলে মহামারীবিরোধী লড়াইয়ের পুরোপুরি বিরোধী।

“২৯ জুন, আপনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন যে পাঁচটি কোভিড-১৯ হটস্পট থেকে দূরপাল্লার ট্রেনগুলিকে রাজ্যে আসার অনুমতি দেওয়া হবে না এবং এই পরামর্শও দিয়েছিলেন যে আন্তর্জাতিক বিমান পরিষেবা বন্ধ রাখা উচিত এবং দেশীয় বিমানগুলিও সপ্তাহে একদিনই চালানো উচিত। অথচ সেই একই সাংবাদিক সম্মেলনে আপনি মেট্রো রেল পরিষেবা ফেল চালু করার প্রস্তাব দিয়েছেন। যেখানে জনস্বার্থেই আগামী ১২ অগাস্ট পর্যন্ত ভারতীয় রেল কর্তৃপক্ষ সমস্ত নিয়মিত ট্রেন পরিষেবা বাতিল করে দিয়েছে”, চিঠিতে লেখেন রীতেশ তিওয়ারি ।

“একদিকে আপনি ট্রেন পরিষেবা এখনই চালু হোক তা চান না, অন্যদিকে সেই আপনিই কলকাতা মেট্রো পরিষেবা শুরু করার জন্যে অধৈর্য হয়ে উঠছেন। আপনি ঠিক কী চান? কলকাতা এবং শহরতলির সাধারণ মানুষ কেন আপনার এই অস্থিরতা এবং মানসিক দোলাচলের মূল্য দেবে?” মুখ্যমন্ত্রীর দিকে প্রশ্নও ছুঁড়ে দিয়েছেন ওই বিজেপি নেতা। “মুখ্যমন্ত্রীর এই দু’রকমের কথা সাধারণ মানুষের জীবনকে বিপদে ফেলেছে, মানুষ বিভ্রান্ত হচ্ছেন”, এমন কথাও চিঠিতে লেখেন তিনি।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons