ঘোর বিপদ! আগামী ২-৩ মাসের মধ্যে দেশে সর্বোচ্চ হবে করোনা সংক্রমণ, দাবি এইমসের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক :  করোনা যখন চিন্তায় ফেলেছে দেশবাসীকে তখন আবার নতুন করে এক আতঙ্কের কথা শোনাল দিল্লি এইমসের প্রধাণ রণদীপ গুলেরিয়ায়। দেশে এই মারণ ভাইরাসের জেরে এখনও প্রাণ হারিয়েছেন ৬,৯২৯ জন। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২ লক্ষ। এই পরিস্থিতিতে রণদীপ গুলেরিয়ায় জানান, আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে ভারতে করোনা সংক্রমণ সবচেয়ে সংকটজনক পরিস্থিতিতে পৌঁছাবে। এই একই দাবি শোনা গিয়েছে বেঙ্গালুরুর নিমহ্যান্স হাসপাতালের প্রধানের গলাতেও।

সম্প্রতি এক বৈদ্যুতিন মাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এইমসের প্রধান বলেন, দেশের যা অবস্থা তাতে এখনও বহু এলাকা রেড জোনে রয়েছে। যদিও এখনও পর্যন্ত কোন গোষ্ঠী সংক্রমণের সন্ধান মেলেনি। কিন্তু দিনের পর দিন যেভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তাতে আগামী ২-৩ মাসের মধ্যে সংক্রমণের সংখ্যাটা শীর্ষে পৌঁছে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। 

এদিনের সাক্ষাৎকারে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে বেশ কিছু উপায়ও পাতলে দেন। তাঁর কথায়, কোভিড পরীক্ষার পাশাপাশি সোশ্যাল ডিসট্যানসিংও বজায় রাখাতে হবে। যিনি কোভিড আক্রান্তের পাশে থেকেছেন তাঁর সবার প্রথমে পরীক্ষা করানো উচিত। পাশাপাশি তিনি সরকারি ও বেসরকারি স্বাস্থ্য ব্যবস্থাকে একজোট হয়ে এই মহামারীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য আর্জি জানান।

অন্যদিকে বেঙ্গালুরুর ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব মেন্টাল হেলথ অ্যান্ড নিউরো সায়েন্সের(নিমহ্যান্স) প্রধান ডা ভি রবি  এক সাক্ষাৎকারে জানান, জুনের পর থেকেই দেশে করোনা সংক্রমণ সর্বাধিক হবে। তারপরেই শুরু হবে গোষ্ঠী সংক্রমণও। তিনি আরও দাবি করেন, ডিসেম্বর মাসের মধ্যে দেশের প্রায় ৫০ শতাংশ মানুষ এই মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হবে। এবং তাঁদের মধ্যে ৯০ শতাংশ আক্রান্ত হয়েছেন কিনা সেটাই জানতে পারবেননা।

 

 

 

Inform others ?

হয়তো আপনার চোখ এড়িয়ে গেছে !

Show Buttons
Hide Buttons