করোনায় আক্রান্ত একই পরিবারের ২৫ জন, চিন্তায় কপালে ভাঁজ রাজ্য সরকারের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : করোনা মোকাবিলায় দিনরাত এক করে কাজ করে চলেছে দেশের প্রশাসন। কিন্তু তবুও সংক্রমণ ঠেকানো যাচ্ছেনা। এবার একইসাথে পরিবাবের ২৫ জন সদস্যের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর মিলল। তাঁরা সকলেই মহারাষ্ট্রের সাংলির বাসিন্দা। 

ইতিমধ্যেই ভারতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ১০০০। যার মধ্যে শুধুমাত্র মহারাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ২১৫ জন। তারই মধ্যে একই পরিবারের ২৫ জনের একসাথে আক্রান্ত হওয়ার খবর আরও বেশি চিন্তায় ফেলেছে সেরাজ্যের প্রশাসনকে। 

কিন্তু কীভাবে ছড়ালো এই সংক্রমণ? জেলা প্রসাশনের তরফে জানানো হয়েছে, সম্প্রতি সৌদি আরব থেকে ফিরেছিলেন ওই পরিবারের চারজন সদস্য। প্রথমদিকে তাঁদের চিহ্নিত করা না গেলেও পরে ২১ মার্চ তাঁদের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্ট পাওয়ার পরেই জানা যায় তাঁরা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত। এর এক সপ্তাহের মধ্য়ে বাকি ২১ জনের শরীরেও করোনার সংক্রমণ মেলে। তাঁদের মধ্য়ে রয়েছে বছর ২-এর এক শিশুও। 

একটি ঘুপচি ঘরে ওই ২৫ জন মানুষ ২৪ ঘন্টা একসাথে থাকতেন, ফলে সংক্রমণ দ্রুত ছড়িয়ে পড়েছে বলে অনুমান করা হচ্ছে। এবিষয়ে সংলির জেলাশাসক অভিজিত চৌধুরি জানান, সৌদি আরব থেকে ফেরার পর তাঁদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা উচিত ছিল। কিন্তু প্রশাসনের তরফে হঠাৎ করেই তাঁদের লালারস পরীক্ষা করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। আর তখনই জানা যায় তাঁদের করোনা পজেটিভ। এরপরেই পরিবারের বাকি সদস্যেদর করোনা পরীক্ষা করা হলে তাঁদেরও ওই একই রিপোর্ট আসে। 

আপাতত সংক্রমণের মাত্রা খুব একটা ছড়াইনি বলেই আশার বাণী শুনিয়েছেন সাংলির জেলাশাসক। তবে ওই গ্রামটির ১ কিলোমিটার মধ্যে মানুষের চলাফেরায় নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে। এমনকি যাদের সাথে ওই পরিবারের সদস্যরা মেলামেশা করেছিল তাঁদের মধ্য়ে ৩২৫ জনকে চিহ্নিত করে তাঁদের হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons