কঠিন অবস্থায় আর্থিক ও মানসিকভাবে পাশে থেকেছেন রাহুল, অকপট স্বীকারোক্তি নির্ভয়ার বাবার

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : নির্ভয়ার মৃত্যুর পর থেকেই তাঁদের কাছে দেবদূতের মতো হয়ে উঠেছিলেন প্রাক্তন কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধী। মানসিকভাবে তাঁদের পাশে যেমন থেকেছেন তিনি, একইভাবে আর্থিক সাহায্যের হাতও তিনি বাড়িয়ে দিয়েছিলেন। নির্ভয়ার চার ধর্ষকের ফাঁসির দিনই একথা অকপটে স্বীকার করলেন নির্যাতিতার বাবা বদ্রিনাথ সিং। এদিন তিনি বলেন, “রাহুল গান্ধী আমাদের পরিবারকে যেমন সান্ত্বনা দিয়েছেন তেমনই নানাভাবে সাহায্যও করেছেন। অনেক সময় অর্থও দিয়েছেন। কিন্তু বাইরে যাতে সেকথা কোনভাবেই প্রকাশ না পায় সেবিষয়ে কঠোর ভাবে নিষেধও করেন তিনি।”

সাত বছরের অপেক্ষার পর অবশেষে ২০ মার্চ ফাঁসিকাঠে চড়েছে নির্ভয়ার চার ধর্ষক। এই সাতটা বছর ধরে নানান প্রতিকূলতার সম্মুখীন হয়েছেন নির্যাতিতার বাবা-মা। সেই দিনগুলির স্মৃতিচারন করতে গিয়ে এদিন বদ্রিনাথ বলেন, “মেয়ের মৃত্যুর পরে অনেকের থেকেই সাহায্যের প্রতিশ্রুতি পেয়েছিলাম। কিন্তু একমাত্র রাহুলের থেকেই আমরা গত সাত বছর এক নাগাড়ে সাহায্য পেয়ে এসেছি। রাহুল যে দলই করুননা  কেন তিনি আমাদের কাছে দেবদূত।” এখানেই শেষ না করে তিনি আরও বলেন, “রাহুলের কাছে আমাদের কৃতজ্ঞতা জানানোর ভাষা নেই। তিনি আমাদের বরাবরই বলতেন, আমাদের সাহায্য করার পিছনে তাঁর কোনও রাজনৈতিক উদ্দেশ্য নেই। মানবিক কারণেই তিনি আমাদের সাহায্য করছেন।”

উল্লেখ্য, দীর্ঘ সাত বছরের লড়ায়ের পর অবশেষে ২০ মার্চ লড়াই শেষ হল নির্ভয়ার পরিবারের। এদিন ৫.৩০ মিনিটে তিহারের ৩ নম্বর জেলে ফাঁসি হয় পবন, অক্ষয়, বিনয় এবং মুকেশ নামের ওই চার দোষীর। ফাঁসির পর এদিন স্মৃতিমেদুর হয়ে পড়েন নির্ভয়ার বাবা। সেখানেই অতীতের কথা বলতে গিয়ে রাহুল গান্ধীর এই সাহায্যের কথা স্বীকার করেন বদ্রিনাথ বাবু।

 

 

 

 
Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons