করোনায় আক্রান্ত ছেলেকে লুকিয়ে রাখায় সাসপেন্ড রেলের মহিলা আধিকারিক

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : সন্তানের প্রতি মায়ের স্নেহ নতুন কোন বিষয় নয়। কিন্তু কোন কোন ক্ষেত্রে তা হয়তো বিপদও ডেকে আনতে পারে। কিছুটা সেরকমই ঘটল এবার। লন্ডন ফেরৎ ছেলের শরীরে করোনা সংক্রমণ থাকা সত্ত্বেও তাঁকে লুকিয়ে রাখার অভিযোগে এবার সাসপেন্ড করা হল দক্ষিণ-পশ্চিম রেলের এক পদস্থ মহিলা আধিকারিককে। 

জানা গিয়েছে, গত ১৩ মার্চ জার্মানি থেকে স্পেন হয়ে ভারতে ফেরেন বছর ২৫-এর ওই যুবক। কিন্তু বেঙ্গালুরুর কেম্পেগৌড়া ইন্টারন্যাশনাল এয়ারপোর্টে নামার পরেই করোনা আক্রান্তের সন্দেহে তাঁকে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকতে নির্দেশ দেন সেখানে থাকা চিকিৎসকরা। কিন্তু চিকিৎসকদের পরামর্শ  মানা তো দূরের কথা বরং উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছেও ছেলের অসুস্থতার কথা লুকিয়ে রাখেন মা অ্যাসিটেন্ট পার্সোনাল অফিসার (ট্রাফিক) নাগলতা গুরুপ্রসাদ। কিন্তু করোনা নিয়ে দেশজুড়ে উত্তেজনা দিন দিন বাড়তে থাকায় ছেলেকে নিয়ে ক্রমেই চিন্তিত পড়েন তিনি। ১৩ তারিখ ছেলের ফেরার পর থেকে ১৬ তারিখ পর্যন্ত এইভাবে চলার পর অবশেষে কেন উপায় না পেয়ে ১৭ তারিখ বেঙ্গালুরু স্টেশনের কাছে অবস্থিত রেলের অফিসারদের জন্য সংরক্ষিত গেস্ট হাউসে ছেলেকে লুকিয়ে রাখেন তিনি।

কিন্তু খবরটি প্রকাশ্যে আসার সাথে সাথেই ছেলের রক্ত পরীক্ষা করা হয়। রিপোর্ট পাওয়ার পরেই তাঁর করোনা পজেটিভ বলে জানা যায়। এই ঘটনার জেরে শুরু হয় জোর বিতর্ক। আঙুল উঠতে শুরু করে তাঁর মায়ের দিকেও। এরপরেই গত ১৯ মার্চ ওই মহিলা আধিকারিককে সাসপেন্ডের নোটিস ইস্যু করেন দক্ষিণ-পশ্চিম রেলওয়ের জেনারেল ম্যানেজার অজয় কুমার সিং।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons