‘ক্যাপ্টেন্সি না করলে কি পাকিস্তানী দলে কোহলি?’ জ্যোতিরাদিত্যকে খোঁচা কংগ্রেস নেতার

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : সদ্যই বিজেপিতে ‌যোগ দিয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। তার পর থেকেই এক এক করে কংগ্রেস নেতা-সমর্থকদের আক্রমনের শিকার হয়েছেন তিনি। অধীর চৌধুরি থেকে শুরু করে রাহুল গান্ধী সকলেরই বিরাগভাজন হয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য। এবার ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাটের প্রসঙ্গ টেনে জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়াকে একহাত নিলেন ছত্তিশগড়ের বর্ষীয়ান কংগ্রেস নেতা টিএস সিং দেও।

ছত্তিশগড়ের এই কংগ্রেস মন্ত্রী কথায়, ‘আদর্শের থেকে ক্ষমতাকেই বেশি গুরুত্ব দিয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। ২০১৮ সালে মধ্যপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী পদ তিনি পাননি। আর ঠিক সে কারনের কংগ্রেস ছেড়ে চিরকালের শত্রু বিজেপিতে ‌যোগ গিয়েছেন তিনি।’ এর পরেই বিরাট কোহলির প্রসঙ্গ উত্থাপন করে তিনি বলেন, ‘আমি জানতে চাই, বিরাট কোহলিকে ‌যদি ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়কের দায়িত্ব না দেওয়া হত, তাহলেকে কী তিনি ভারতের চির শত্রু পাকিস্তানের ক্রিকেট দলে ‌যোগ দিতেন?’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার সনিয়া গান্ধির কাছে নিজের ইস্তফাপত্র পাঠানোর পর বুধবারই সমস্ত জল্পনা কাটিয়ে বিজেপিতে ‌যোগদান করেন জ্যোতিরাদিত্য সিন্ধিয়া। নতুন দলে ‌যোগদান করার পর থেকেই তাঁর মুখে কংগ্রসে নিয়ে একাধিক নালিশ শোনা গিয়েছে। তবে জ্যোতিরাদিত্যের বিজেপিতে ‌যোগদানের বিষয়টিকে একেবারেই ভালো চোখে দেখেননি। মধ্যপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দিগ্বিজয় সিং তাঁর নাম না করে মাফিয়া  বলে সম্বোধন করেন। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হওয়ার লোভে কংগ্রেস ছেড়েছেন বলেও তাঁকে আক্রমণ করতে ছাড়েননি বহরমপুরের সাংসদ অধীর চৌধুরি। রাহুল গান্ধীর কথায়, নিজের আদর্শকে বিসর্জন দিয়ে কংগ্রেসে গিয়েছেন জ্যোতিরাদিত্য। একই সাথে বজেপিতে ‌যে তিনি ‌যোগ্য সম্মান পাবেননা তাঁরও ভবিষ্যদ্বাণী করেন রাহুল।   

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons