করোনা সংক্রমণ সন্দেহে হাসপাতালে ভর্তির সিদ্ধান্ত, বিমানবন্দর থেকে পলাতক যাত্রী

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : বিমানবন্দরে স্ক্রিনিং-এর পর করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সন্দেহে এক ব্যক্তিকে হাসপাতালে নিয়ে ‌যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। কিন্তু কারো কোন কথা না শুনেই বিমানবন্দর থেকে চম্পট দিলেন ওই ব্যক্তি। এরপরেই পুলিশ-প্রশাসন তাঁর খোঁজ শুরু করেছে। এমনকি পলাতক ওই ব্যক্তির বাড়ির সামনেও পাহারার ব্যবস্থা করা হয়েছে। কিন্তু কেন হঠাৎ ওই ব্যক্তি পালিয়ে গেলেন তার কারন খুজে পাচ্ছেনা কেউই।

জানা গিয়েছে পালাতক ওই ব্যক্তি দুবাই থেকে ফিরছিলেন। তিনি কর্ণাটক পৌঁছানোর পর ম্যাঙ্গালোর বিমানবন্দরে সকল বিমান ‌যাত্রীদের পাশাপাশি তাঁরও প্রাথমিক পরীক্ষা করা হয়। সেখানেই ওই ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত বলে সন্দেহ করা হয়। সাথে সাথে তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে ‌যাওয়ারও তোড়জোড় করা হয়। কিন্তু তার আগেই সেখান থেকে পালিয়ে ‌যান ওই ব্যক্তি।

করোনার আতুড়ঘর চিন হলেও ইতিমধ্যেই বিশ্বের ১০০ টির বেশি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে এই ভাইরাসের সংক্রমণ। এই ভাইরাসে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে। শেষ পাওয়া খবর অনু‌যায়ী ভারতে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ৪৩। সংক্রমণ এড়াতে স্টেশন সহ বিমানবন্দরে একাধিক সচেতনতা জারি করা হয়েছে প্রশাসনের তরফে। ভিন দেশ থেকে আগত সকলের শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে বিমানবন্দরে।

হাসপাতেলে খবর নিয়ে জানা গিয়েছে পলাতক ওউ ব্যক্তি হাসপাতালে ‌যাননি। অনেকের মতে ওই ব্যক্তি গা ঢাকা দিয়েছেন। ইতিমধ্যেই স্বাস্থ্য দপ্তরের আধিকারিকেরা পুরো বিষয়টি পুলিশকে জানিয়েছেন। শুরু হয়েছে চিরুনি তল্লাশি। এই ঘটনার জেরে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে কর্ণাটক প্রশাসন।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons