ইয়েস ব্যাঙ্কের নিয়ন্ত্রন রিজার্ভ ব্যাঙ্কের হাতে, তোলা ‌যাবেনা ৫০০০০ এর বেশি টাকা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : ইয়েস ব্যাঙ্কের উদ্ধারে এবার আরবিআই, দিনভর চললো পালাবদল বেসরারী এই ব্যাঙ্কে। পুঁজির আবস্থা টালমাটাল থাকায় ইয়েস ব্যাঙ্কের ভবিষ্যত ঘিরে প্রশ্ন উঠেছিল। এদিন রাতে স্টক এক্সচেঞ্জকে স্টেট ব্যাঙ্ক জানায় ইয়েস ব্যাঙ্ককে পুণরুজ্জীবিত করতে নীতিগত সম্মতি দিয়েছে পর্ষদ। সুত্রের খবর কেন্দ্র চাইছে স্টেট ব্যাঙ্ক ও এলাইসি একসাথে ইয়েস ব্যাঙ্কের ৪৯ শতাংশ অংশীদারী নিক। প্রসঙ্গত, এর আগে ডুবন্ত আইডিবিআই ব্যাঙ্কের উদ্ধারেও নি‌যুক্ত করা হয় এলআইসকে। এতে পলিসি হোল্ডারদের পুঁজির সুরক্ষা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

শুক্রবার ইয়েস ব্যাঙ্কের ওপর কতগুলি নির্দেশ জারী করেছে আরবিআই। আমানতকারীরা ৩রা এপ্রিলের মধ্যে ৫০,০০০ টাকার বেশি টাকা তুলতে পারবেন না। তবে ড্রাফট বা পে অর্ডারের ওপর এই উর্দ্ধসীমা কা‌র্যকর হবেনা। অসুস্থতা, পড়াশোনা ও বিয়ের কারণে এই টাকা তোলা ‌যাবে। আরবিআইএর দেওয়া সময়সীমার মধ্যে কোনো ঋণ দিতে পারবেনা ইয়েস ব্যাঙ্ক।

ইয়েস ব্যাঙ্কের পরিচালন সমিতিতেও হয়েছ বদল, প্রশাসকের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে স্টেট ব্যাঙ্কের প্রাক্তন সিএফও প্রশান্ত কুমারকে। ‌রিজার্ভ ব্যাঙ্কের তরফ থেকে জানানো হয়, কোনো আমানতকারীর টাকা খোয়া ‌যাবে না। তাদের আমানত সম্পর্কে আস্বস্ত করার জন্যেই কেন্দ্রের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

গত দুবছর ধরে পরিচালন ব্যবস্থা ও মূলধনের অবস্থা এই দুই বিষয়ে অসুবিধার সম্মুখীন হচ্ছিল ইয়েস ব্যাঙ্ক। পরিচালন ব্যবস্থা ও ঋণ নিয়ে সমস্যা তৈরী হওয়ায় ২০১৯ সালের ৩১শে জানুয়ারী তৎকালীন সিইও রানা কাপুরকে সরে ‌যাওয়ার নির্দেশ দেয় আরবিআই। পরবর্তি সিইও রবনীত গিলের সময় ২০১৯ সালের জানুয়ারী মার্চ ত্রৈমাসিকে বিপুল অনাদায়ী ঋণের কথা জানায় ইয়েস ব্যাঙ্ক কর্তৃপক্ষ। পুঁজি সংগ্রহের প্রক্রীয়াও বেহাল হয়ে পড়েছিল। রিজার্ভ ব্যাঙ্কের নির্দেশিকায় জানানো হয় গত ছমাসে পুঁজি জোগাড়ের চেষ্টা করেও ব্যার্থ হয়েছে ইয়েস ব্যাঙ্ক।           

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons