বিচারপতির বদলি নিয়ে বিরোধিদের সমালোচনা,পাল্টা দিলেন আইনমন্ত্রী

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি এস মুরলীধরের বদলি নিয়ে যখন তুমুল সমালোচনা চলছে বিরোধী দলগুলির মধ্যে তখনই কেন্দ্রীয় সরকার থেকে  দাবি করা হল, যথাযথ নিয়ম মেনেই বদলি করা হয়েছে বিচারপতিকে। এ ব্যাপারে তিনিও সম্মতি দিয়েছেন।

মুরলীধরের রুটিন বদলিকে নিয়ে কংগ্রেস রাজনীতি করছে বলে অভিযোগ করে বৃহস্পতিবার একের পর এক ট্যুইট করেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ। তিনি লেখেন, ‘১২.০২.২০২০ তারিখ প্রধান বিচারপতির নেতৃত্বাধীন সুপ্রিম কোর্টের কলেজিয়ামের প্রস্তাবের ভিত্তিতেই সম্মানীয় বিচারপতি মুরলীধরের বদলি করা হয়েছে। বদলির সময় বিচারপতির সম্মতিও গ্রহণ করা হয়েছে। যথাযথ নিয়ম মেনেই এই বদলি হয়েছে।’

এখানেই না-থেমে তিনি আরও বলেন, ‘বিচারপতি এস মুরলিধর এর এই নিয়মমাফিক  বদলিকে নিয়ে নোংরা রাজনীতি করছে কংগ্রেস। এতেই প্রমাণিত হয় তাদের ভারতীয় বিচারব্যবস্থার  প্রতি অশ্রদ্ধা। ভারতীয়রা  কংগ্রেসকে গ্রহণ না করার কারণে তারা ভারতের পরিচালনার অন্যতম  ব্যবস্থাটিকে বারংবার আক্রমণ করছে। টে রাজনৈতিক দল একটি পরিবারের ব্যাক্তিগত সম্পত্তি তাদের ভারতীয় বিচারব্যবস্থা নিয়ে মন্তব্য করার অধিকার নেই’

কলেজিয়ামের প্রস্তাবের দু সপ্তাহ পর বুধবার রাত ১১টা নাগাদ বিচারপতি মুরলীধরকে পঞ্জাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টে বদলি সংক্রান্ত বিক্ষপ্তি জারি করে সরকার। মধ্যরাতের এই বিজ্ঞপ্তি নিয়েই সরব হয়েছে বিরোধীরা। বুধবারই এই মামলায় কেন্দ্রীয় সরকার, রাজ্য সরকার এবং দিল্লি পুলিশকে তীব্র ভর্ৎসনা করেছিলেন বিচারপতি এস মুরলীধর।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons