আবার দিল্লিতে মৃত পুলিশ, পরিস্থিতি এখনও অশান্ত

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : জ্বলছে দিল্লি। এই পরিস্থিতিতে এবার বলি হলেন এক গোয়েন্দা অফিসার। বুধবার দিল্লির চাঁদবাগ এলাকার একটি নালা থেকে তাঁর দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ‌যদিও মৃত্যুর পিছনে ঠিক কী কারন রয়েছে তা নিয়ে রয়েছে ধোঁয়াশা।    

দিল্লির চাঁদবাগে এখনও জারি রয়েছে কার্ফু। এমতাবস্থায় অঙ্কিত শর্মা(২৬) নামের এই গোয়েন্দা অফিসারের মৃত্যুতে তৈরি হয়েছে চাঞ্চল্য। দিল্লিতে সিএএ বিরোধিতায় এখনও প‌র্যন্ত হিংসার বলি হয়েছে ২০ জন।

গত সোমবার থেকে নতুন করে উত্তপ্ত হয় রাজধানী দিল্লি। সিএএ বিরোধী আন্দোলনের প্রথম দিনেই প্রাণ হারিয়েছেন একজন পুলিস কনস্টেবল। ময়নাতদন্তের  রিপোর্ট অনু‌যায়ী গুলিবিদ্ধ হয়েই তাঁর ‌মৃত্যু হয়। এর দু’দিনের মাথায় ফেল মিলল এক গোয়েন্দা অফিসারের মৃতদেহ। এদিন দিল্লির চাঁদবাগ এলাকায় একটি নালা থেকে উদ্ধার হয়েছে অঙ্কিত শর্মার মৃতদেহ। মঙ্গলবার বিকেলে তিনি ‌যখন বাড়ি ফিরছিলেন ঠিক তখনই চাঁদবাগ ব্রিজের কাছে গণপিটুনির শিকার হন তিনি। আশঙ্কা করা হচ্ছে তখনই তাঁকে খুন করে মৃতদেহ নালায়  ফেলে দেয় দুষ্কৃতিরা।    

জানা গিয়েছে অঙ্কিত শর্মার বাবা রবীন্দ শর্মা নিজেও একজন গোয়েন্দা অফিসার। এবিষয়ে তিনি অভি‌যোগ করে বলেন, তাঁর ছেলের মৃত্যুর পেছনে আম আদমি পার্টির নেতাদের হাত রয়েছে। ইতিমধ্যেই অঙ্কিতের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

এরইমধ্যে দিল্লির পরিস্থিতিকে নিয়ন্ত্রনে আনার জন্য অতিরিক্ত সেনা নামানোর দাবি জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। স্বারাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহকে এবিষয়ে চিঠি পাঠান তিনি। এদিকে সরকারের ব্যর্থতার অভিযোগ তুলে এদিন সাংবাদিক বৈঠকে অমিত শাহের পদত্যাগ দাবি জানান সোনিয়া গান্ধী। অন্যদিকে দিল্লির হিংসা নিয়ন্ত্রণে আনতে না পারায় পুলিশের ব্যর্থতাকে ভর্ৎসনা করেছে সুপ্রিম কোর্ট। এমনকী পুলিসের পেশাদারিত্বেরও অভাব রয়েছে বলে দাবি জানিয়েছে শীর্ষ আদালত।

Inform others ?

হয়তো আপনার চোখ এড়িয়ে গেছে !

Show Buttons
Hide Buttons