চিনের জৈব অস্ত্রের খোঁজে দোসর পাকিস্তান, ভারতের জন্য অপেক্ষায় বড় বিপদ

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : গোটা বিশ্ব করোনা জ্বরে কাবু। আর তার জন্যেই প্রায় সমগ্র বিশ্বের চক্ষুশূল এখন চীন। এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট তো বারকতক বেশ এক হাত নিয়েই নিয়েছেন চিন আর হু-এর এই বিষয়ে দায়িত্বজ্ঞানহীনতার বিষয়ে। এরই মধ্যে লাদাখে ভারতের সাথে চিনের ‌যে সংঘর্ষ চলছে তার সাথে আবার বেশ খানিকটা চিন্তার কারণ ‌যোগ হল। সূত্রের খবর পাকিস্তানের সাথে গোপন গোয়েন্দা চুক্তি হয়েছে চিনের।

একটি প্রতিরক্ষা বিষয়ক পত্রিকা এই বিষটি সম্প্রতি প্রকাশ্যে এনেছে। এই পত্রিকার তথ্য অনু‌যায়ী চিনের উহান প্রদেশের ‌যে ল্যাব থেকে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে বলে জানা ‌যায়, সেখানেই একটি জৈব অস্ত্রের চাষ করছে চিন, আর চিনের এই উদ্যোগে সহ‌যোগি হল পাকিস্তান। এই ল্যাব থেকেই আগেও বহুবার বহু দেশ বিভিন্নরকম ভাইরাস ও জৈব অস্ত্রের পরীক্ষা নিরিক্ষা নিয়ে অভি‌যোগ তুলেছে কিন্তু  বরাবরই তা অস্বীকার করে এসেছে চিন।

তবে সবচেয়ে চিন্তার বিষয় হল, ঐ পত্রিকার তথ্য অনু‌যায়ী এই অস্ত্রের শীকার হবে ভারত। পত্রিকার দাবি ইতিমধ্যেই পাকিস্তানি সেনার গবেষণা শাখা ডিফেন্স সায়েন্স অ্যান্ড টেকনোলজি অর্গানাইজেশন, উহান ইনস্টিটিউটে অব ভাইরোলজির সাথে একসাথে এই পরীক্ষা নিরিক্ষা করছে। এমনকি এই রিপোর্টে বলা হয় এই ল্যাবে অ্যানথ্র্যাক্স সহ আরও বেশ কিছু ভয়ানক ভাইরাস নিয়ে কাজ করছে চিন ও পাকিস্তান। এই পরীক্ষায় সফল হলেই ভারত সহ ইউরোপের নানান দেশকে আক্রমণ করবে এই দুই দেশ।

তবে এর সাথে চিন্তার ভাঁজ বাড়াচ্ছে আরও একটি খবর, ইতিমধ্যেই এক মার্কিন প্রতিবেদনে জানানো হয়, আল কায়দার মত জঙ্গী গোষ্ঠীগুলিও এই জৈব অস্ত্র কেনার চেষ্টা করছে। অন্যদিকে পাকিস্তান বরাবরই জঙ্গি গোষ্ঠীদের বিচরণ ক্ষেত্র। সেক্ষেত্রে এর ফলাফল কী দাঁড়াবে তা ভাবতেও খানিকটা থামছেন বিশেষজ্ঞরা।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons