মৃত ঘোষণা হওয়ার প্রায় ১০ ঘন্টা পর প্রাণ ফিরে পেলেন ৮৩ বছর বয়েসি মহিলা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : সে মরিয়া প্রমাণ করিল, ‌যে মরে নাই।

কবির এই প্রবাদই সত্যি প্রমাণ করল ইউক্রেনের এক মহিলা। প্রায় ১০ ঘন্টা কা‌র্যত মৃত থাকার পর ফের জীবন ফিরে পেলেন তিনি। এবং সেই অবস্থায় কী কী ঘটেছে তার সাথে তাও বললেন প্রাণ ফিরে পাওয়ার পর।

ইউক্রেনের স্টিরজাকা এলাকায় ঘটে এই ঘটনা। এই অঞ্চলের বাসিন্দা সেনিয়া জি‌যুক নামের এই বমহিলার বয়স ৮৩ বছর, তাঁকে চিকিৎসকরা ১০ ঘন্টা আগে মৃত বলে ঘোষণা করেন। ৮৩ বছর বয়েসি এই মহিলা পেশায় একজন স্বাস্থ্যকর্মী ছিলেন। তিনি এই ঘটনার আগে প্রায় ১০ দিন তৃতীয় প‌র্যায়ের কোমায় ছিলেন।

তাঁর পরিবার তাঁকে বাড়িতে রেখেই চিকিৎসা চালাচ্ছিলেন। চিকিৎসকরাই তাঁর অবস্থা দেখে এই পরামর্শ দেন। তারা বলেন, সেনিয়ার শারিরীক অবস্থায় তাঁকে হাসপাতালে নিয়ে ‌যাওয়ার চেষ্টা করলে অবস্থার আরও অবনতি হতে পারে।

চিকিৎসকরা তাঁর বাড়ি থেকে চলে আসার পরই তাঁর নিঃশ্বাসে পরিবর্তন দেখা দেয়, এবং তিনি কিছুক্ষণ পর নিঃশ্বাস নেওয়া বন্ধ করে দেন। এরপরই তাঁর পরিবারের তরফ তেকে চিকিৎসক ও পুলিশে খবর দেওয়া হয়। চিকিৎসকরা তাঁকে পরীক্ষা করে জানান, তিনি মৃত।

চিকিৎসকদের ঘোষণার পর তাঁর পরিবার তাঁর শেষকৃত্যের ব্যবস্থা করতে থাকেন। এমনকি স্থানিয় প্রশাসনের তরফ তেকে তাঁর ডেথ সার্টিফিকেটও পেয়ে ‌যান তাঁরা। তাঁর শেষকৃত্যের জন্য পাদ্রীও স্থীর করা হয় এমনকি তাঁকে কবর দেওয়ার সমস্ত ব্যবস্থাও করে ফেলেন তাঁরা।

এর মধ্যেই একটি অদ্ভুত ব্যপার লক্ষ্য করেন সেনিয়ার কন্যা। তিনি জানান সকালে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করার পরও সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ তিনি ‌যখন তাঁকে স্পর্শ্ব করেন সেনিয়ার শরীর তখনও গরম ছিল, তাতেই তিনি সন্দেহ প্রকাশ করেন ‌যে তাঁর মা হয়ত তখনও জীবিত। এরপরই তাঁকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে ‌যাওয়া হয়।

সেনিয়ার চিকিৎসক ডঃ ভ্লাদিমির চেবোতারেভ জানান, তাঁর ৩৭ বছরের কর্ম জীবনে এমন ঘটনার স্বাক্ষী প্রথমবার হলেন তিনি। তাঁকে ‌যখন প্রথম হাসপাতালে নিয়ে আসা হয় সেনিয়া তখন স্টেজ থ্রী কোমায় ছিলেন, ‌যার অর্থ অঙ্গ প্রত্যঙ্গে তিনি জীবিত হলেও শারীরিক ভাবে তিনি প্রায় মৃত ছিলেন। হাসপাতালে প্রায় একসপ্তাহ প‌র্যবেক্ষণে থাকার পর তিনি ফের সুস্থ হয়ে ওঠেন। এবং জানান, তিনি প্রথমে ভেবছিলেন তিনি মৃত এবং স্বর্গে এসে পৌঁছেছেন, তাই তিনি তাঁর মৃত পিতার সাথে দেখা করতে চান। তিনি জানান, চোখ খোলার পর সাদা পোশাকের মানুষ দেখে আমি প্রথমে তাদের স্বর্গের দূত ভেবেছিলাম।  

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons