তিনদিন পর কবর থেকে জীবন্ত উদ্ধার বৃদ্ধা, খুনের দায়ে গ্রেফতার সন্তান

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : মা জীবিত, তবু তাঁকে মাটি চাপা দিয়ে এল ছেলে। ঘটনার তিন দিন পর জীবিত অবস্থায় তাঁকে উদ্ধার করে পুলিশ। পুলিশ জানিয়েছে, এই বৃদ্ধার মানসিক ভাবে এতটাই বিধ্বস্ত ছিলেন যে, মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেও কাতর কন্ঠে সাহায্য চাইছিলেন। ইতিমধ্য়েই ওই মহিলার ছেলের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পুরো ঘটনার তদন্তে নেমেছে উত্তর চিনের পুলিশ। 

এবিষয়ে অভিযুক্ত ওই ছেলের স্ত্রী জানান, গত ২ মে শ্বাশুড়িকে একটি হুইল চেয়ারে বসিয়ে নিয়ে যান তাঁর স্বামী। তার পর তিন দিন কেটে গেলেও শ্বাশুড়ি আর ফেরেননি। কিছুটা সন্দেহ হওয়ায় পুলিশকে পুরো বিষয়টি জানান ওই মহিলা। একইসাথে এটাও জানা যায় শানসি প্রদেশের জিংবিয়ান কাউন্টিতে ওই প্রোঢ়াকে আটকে রাখা হয়। ইতিমধ্য়েই চিনের একটি দৈনিক পত্রিকা সহ আরও বেশ কিছু সংবাদমাধ্যম পুলিশের এই বিবৃতি প্রকাশ করা হয়েছে। যদিও এবিষয়ে বিস্তারিত ভাবে কিছু জানায়নি পুলিশ। 

জানা গিয়েছে, অভিযুক্ত ওই ছেলের বয়স ৫৮ বছর। এবং তাঁর মায়ের বয়স ৭৯। আংশিকভাবে বিকলাঙ্গও ছিলেন ওই বৃদ্ধা। এতদিন পর্যন্ত মায়ের দায়িত্ব ছিল অভিযুক্ত ওই ছেলের ওপরেই। মনে করা হচ্ছে, দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ মাকে সেবা করতে করতে বিরক্ত হয়েই মাকে জ্যান্ত পুঁতে ফেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন ছেলে। 

চিনের এক সংবাদমাধ্যম সুত্রে জানা গিয়েছে, চিনের বেশিরভাগ গ্রামীন এলাকায় বিশেষ প্রশাসনিক সহযোগিতার অভাব রয়েছে। বিশেষ করে দরিদ্র গ্রামীন এলাকাগুলিতে এই সহায়তার অভাব বিশেষ ভাবে দেখা যায়। ফলে নিজেদের বৃদ্ধ আত্মীয়দের সমস্ত দেখভালের দায়িত্ব তাঁদের পরিবারগুলিকেই নিতে হয়। ফলে দরিদ্র মানুষগুলোকে আনেকটাই সমস্যায় পড়তে হয়। 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons