বেপাত্তা রিয়া! পাটনা পুলিশ যোগাযোগ করতে ব্যর্থ নায়িকার সঙ্গে : রিপোর্ট

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : খোঁজ মিলছে না রিয়া চক্রবর্তীর। বিহার পুলিশের তরফে রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও এখনও খোঁজ নেই সুশান্তের বান্ধবীর। সূত্রের খবর, গতকাল রাত থেকেই রিয়া চক্রবর্তীর সঙ্গে যোগাযোগের লাগাতার চেষ্টা করা হচ্ছে পাটনা পুলিশের সঙ্গে, তবে এখনও কোনওরকম সাড়া মেলেনি তাঁর। মুম্বইতে রিয়ার বাড়ির সামনে বুধবার সকাল থেকেই অদ্ভূত নিস্তব্ধতা। এদিন কাউকেই তাঁর বাড়িতে আসতে বা সেখান থেকে বার হতে দেখা যায়নি। আপতত মুম্বই পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ অফিয়ে রয়েছে পাটনা পুলিশের তদন্তকারী অফিসাররা। এই মামলায় মুম্বই পুলিশের যাবতীয় তদন্তের রিপোর্ট, বয়না খতিয়ে দেখছে তাঁরা।  সকাল থেকে এখনও রিয়ার বাড়িতে এসে পৌঁছায়নি পাটনা পুলিশের টিম। 

রিয়া ও অভিনেত্রীর পরিবারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা (আর্থিক ও মানসিক) এবং তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মতো অভিযোগ এনেছেন কেকে সিং। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৪১,৩৪২,৩৮০,৪০৬, ৪২০-ধারায় রিয়ার পুরো পরিবারের বিরুদ্ধে পাটনার রাজীব নগর থানায় অভিযোগ জানিয়েছে সুশান্তের পরিবার। গত শনিবার দায়ের করা হয়েছে এই এফআইআর। পাটনা পুলিশের দলের মুম্বই আসার ব্যাপারে নাকি শুরুতে কোনও তথ্য ছিল মুম্বই পুলিশের কাছে। এফআইআর রুজু হওয়ার বিষয়টিও গতকালই মুম্বই পুলিশের সামনে আসে। উল্লেখ্য সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তে কোনওরকম এফআইআর দায়ের করেনি মুম্বই পুলিশ। সেই নিয়েও আপত্তি জানিয়েছে সুশান্তের পরিবার। সংবাদ সংস্থা এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাত্কারে কেকে সিংয়ের আইনজীবী বিকাশ সিং জানান, ‘পাটনায় এফআইআর এখন দায়ের করা হয়েছে কারণ পরিবার একটা শকের মধ্যে ছিল এবং মুম্বই পুলিশ এফআইআর দায়ের করছিল না। তাঁরা বেশ কিছু বড় প্রযোজক সংস্থা নাম জোর করে জড়ানোর চেষ্টা করছিল এবং মামলাটি অন্যদিকে ঘুরে যাচ্ছিল’।

রিয়ার ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়েরের খবর সামনে আসার পরই মঙ্গলবার রাতে তড়িঘড়ি জলেবি অভিনেত্রীর বাড়িতে হাজির হন তাঁর আইনজীবী। তখনই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছিল আইনি লড়াইয়ের জন্য ঘুঁটি সাজাচ্ছে রিয়া। বুধবার সকালে জানা গিয়েছে, অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন জানাচ্ছেন রিয়া চক্রবর্তী। ডিএন’তে প্রকাশিত রিপোর্ট বলছে আজই আদালতে আন্তর্বতীকালীন জামিনের আবেদন জানাতে পারেন রিয়া। গতকাল রাতে তিনঘন্টা ধরে আইনজীবী আনন্দিনি ফার্নান্দেজের সঙ্গে আলোচনা করেন রিয়া ও তাঁর পরিবার। এই অন্তর্বর্তী জামিন না পাওয়া পর্যন্ত পাটনা পুলিশের মুখোমুখি হতে চাইছেন না রিয়া চক্রবর্তী, মনে করছেন আইনি বিশেষজ্ঞরা।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons