যশরাজ আর সুশান্ত সিং রাজপুতের কন্ট্রাক্ট চেয়ে পাঠাল মুম্বই পুলিশ

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : সুশান্ত সিং রাজপুতের সঙ্গে কী চুক্তি ছিল, জানতে চেয়ে যশ রাজ ফিল্মসকে সমন পাঠাল মুম্বই পুলিশ। দ্বিপাক্ষিক সেই চুক্তির বিস্তারিত থানায় পাঠাতে উল্লেখ করা হয়েছে সেই চিঠিতে। শুক্রবার এমনটাই জানিয়েছেন মুম্বই পুলিশের  এক কর্তা। এই প্রসঙ্গে মুম্বই পুলিশ সূত্রে খবর, দিন কয়েক আগে দীর্ঘক্ষণ জেরা করা হয়েছে মৃত অভিনেতার বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে। তিনি পুলিশকে বলেছেন, “সুশান্তকে আমি বলেছিলাম যশরাজের সঙ্গে চুক্তি ভাঙো। আমিও ভেঙেছি, তুমিও ভাঙো।” ইতিমধ্যে প্রায় ১৩ জনের বয়ান রেকর্ড করেছে বান্দ্রা থানার পুলিশ। তালিকায় সুশান্ত ঘনিষ্ঠ রিয়া চক্রবর্তী, মুকেশ ছাবড়া ছাড়াও পরিবার ও অন্য বন্ধুরা রয়েছেন। জানা গেছে, তদন্তের স্বার্থে যশ রাজ ফিল্মসের কর্ণধার আদিত্য চোপড়া  আর কাস্টিং ডিরেক্টরকে তলব করতে পারে পুলিশ। তার আগে প্রযোজনা সংস্থা আর অভিনেতার মধ্যে হওয়া চুক্তি খতিয়ে দেখতে চাইছেন তদন্তকারীরা। ২০১৩-২০১৫’র মধ্যে সুশান্ত সিং রাজপুত যশ রাজ ব্যানারে দু’টি ছবি করেছেন, শুদ্ধ দেশি রোম্যান্স আর ডিটেকটিভ ব্যোমকেশ বক্সী। তিন নম্বর ছবি ‘পানি’ এই ব্যানারে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু শেষুহূর্তে ছবি প্রযোজনার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসে যশ রাজ ফিল্মস। 

অন্যদিকে “একমাত্র তুই পারতিস ওকে বাঁচাতে”। অঙ্কিতা লোখাণ্ডেকে এই বার্তা পাঠালেন সুশান্ত ঘনিষ্ঠ সন্দীপ সিং। মৃত্যুর প্রায় একসপ্তাহ পর সুশান্তের স্মৃতিতে একটা বেদনাভরা পোস্ট করেছেন এই পরিচালক। সেই পোস্টে সুশান্ত সিং আর সন্দীপ সিং কতটা অঙ্কিতা নির্ভর ছিলেন, সেটাই তুলে ধরা হয়েছে। টিনসেল টাউনে গুঞ্জন, সেই পবিত্র রিস্তার সময় থেকে সম্পর্ক সুশান্ত সিং আর অঙ্কিতা লোখাণ্ডের। প্রায় ছ’বছর চলেছে সেই সম্পর্ক। আর সেই সময় থেকে অর্থাৎ ২০০৮ থেকেই এই দুই তারকার সঙ্গে সম্পর্ক সন্দীপ সিংয়ের। ইনস্টাগ্রামে এই পরিচালক লেখেন, “আমি জানি একমাত্র তুই পারতিস ওকে বাঁচাতে। যেরকম স্বপ্ন দেখতাম তুই ওকে বেশ বিয়ে করতিস। তুই ওর মা ছিলি, স্ত্রী ছিলি, বান্ধবী ছিলি, বেস্ট ফ্রেন্ড ছিলিস। তোকে আর হারাতে পারব না অঙ্কিতা। তাহলে আর নিজেকে ঠিক রাখতে পারবো না।”

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons