আকাশ ভাঙা বৃষ্টিতে অবশেষে শেষযাত্রায় সুশান্ত

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : আকাশ ভেঙে বৃষ্টি নেমেছে মুম্বইয়ে। যেন নিজের এক প্রিয় সন্তানের মৃত্যুকে মেনে নিতে পারছে না মায়ানগরী। অঝোর ধারায় তাই কেঁদে চলেছে প্রকৃতি। তারইমধ্যে এদিন দুপুর সাড়ে তিনটে নাগাদ কুপার হাসপাতাল থেকে ভিলে পার্লের পবন হংস শ্মশানে নিয়ে যাওয়া হল সুশান্ত সিং রাজপুতের মরদেহ। 

সেখানেই অভিনেতার শেষকৃত্য সম্পন্ন হবে। এদিন সুশান্তের শেষকৃত্যে উপস্থিত রয়েছেন রণবীর শোরে, শ্রদ্ধা কাপুর, রণদীপ হুড্ডারা। ছিলেন সুশান্তের বান্ধবী রীহা চক্রবর্তীও। পৌঁছেছিলেন বিবেক ওয়েবর। বলিউডের ইয়ং ব্রিগেডের আরও বেশ কিছু  তারকা এলেও তালিকায় না থাকায় তাঁদের শ্মশানে ঢুকতে দেয়নি পুলিশ। মাত্র ২০ জনকেই সুশান্তের শেষকৃত্যে হাজির থাকার অনুমতি দেওয়া হয়েছে এই করোনা সংকটের আবহে। যদিও এদিন সুশান্তের শেষকৃত্যে চোখে পড়েনি বলিউডের কোনও সিনিয়ার তারকার। 

প্রস্ঙ্গত, হাসপাতালের রিপোর্ট বলছে, ঝুলে থাকায় অ্যাসফিক্সিয়ার কারণেই মৃত্যু হয়েছে অভিনেতার। আমৃত্যু দড়িতে ঝুলে ছিলেন তিনি। যে চিকিৎসক সুশান্তের ময়নাতদন্ত করেছেন, তিনি জানিয়েছেন, সুশান্তের শরীরে কোনো ড্রাগ বা বিষ রয়েছে কি না, সেটি জেজে হাসপাতালে পরীক্ষা করা হবে। এমনিতে মুম্বাই পুলিশ ভিসেরার নমুনা সংরক্ষণ করে রেখেছে রাসায়নিক বিশ্লেষণের জন্য। সেসব নমুনা ফরেনসিক ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হবে।
সুশান্তের দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছিল মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে। ছবি: ইনস্টাগ্রামপ্রসঙ্গত, শরীরে অক্সিজেনের ঘাটতি দেখা দিলে তার থেকে মানুষ অজ্ঞান হয়ে যেতে পারে বা মারাও যেতে পারে। এই অবস্থাকেই বলে অ্যাসফিক্সিয়া।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons