বিয়েতে রূপার মাস্ক, অভিনব অলঙ্কার বানাল কর্নাটকের অলঙ্কার প্রস্তুতকারী সংস্থা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : কথায় বলে মুষলধারে বৃষ্টির পরই রামধনু দেখা যায় আর এই করোনা আবহে সেই রামধনুর মতই খানিকটা ভালোর ছোঁয়া দিতে তৎপর কোলাপুরের সন্দিপ সাগাওকার। করোনা আবহে গৃহবন্দি মানুষ, যে কোনো কারণেই জমায়েত নিষিদ্ধ। ফলে বিবাহ অনুষ্ঠানের মত আনন্দ উৎসবও হচ্ছে একান্তে। এই করোনার মধ্যেই পড়েছে বিয়ের মরশুম, কিন্তু অনুষ্ঠানে নানান বিধিনিষেধ। ফলে বিনা আড়ম্বরেই বহু দম্পতিকে সারতে হচ্ছে বিয়ে।

এই অবস্থাতেই বর-কনের মুখে হাসি ফোটাতে এক অভিনব মাস্ক নিয়ে এল বেলগাঁও এর এক অলঙ্কার প্রস্তুতকারী সংস্থা। কর্নাটক-মহারাষ্ট্র সিমান্তে অবস্থিত এই সংস্থা তাদের বিয়ের গয়নার সম্ভারে যুক্ত করল রূপার মাস্ক। যা বিয়ের সাজের সাথে মানানসই হবে ব‌র-কনের জন্য। এই সংস্থার কর্নধার সন্দিপ সাগাওকার জানান, তার এই অভিনব অলঙ্কার দ্রুত জনপ্রিয়তা পেয়েছে, এমনকি বিপুল পরিমাণে চাহিদা তৈরি হয়েছে এই রূপার মাস্কের। 

এই বিষয়ে তাঁকে প্রশ্ন করলে তিনি জানান, লকডাউনের জেরে অন্যান্য সমস্ত ব্যবসার মত তার ব্যবসাও মার খাচ্ছিল ব্যাপক হারে। সেই সময়েই এই মাস্ক বানানোর ভাবনা আসে তাঁর। যা অত্যন্ত সময়োপযোগী এবং প্রয়োজনীয়ও।

এক একটি রূপার মাস্কের ওজন হয় ২৫ গ্রাম থেকে ৩৫ গ্রাম। এর দাম ২৫০০ টাকা থেকে শুরু করে ৩৫০০ টাকা পর্যন্ত হয় ওজনানুপাতে। এই মাস্ক দেখতে অবিকল এন-৯৫ মাস্কের মত। এবং মাস্ক পেতে গেলে বেশ কিছুদিন আগে অর্ডার দিতে হবে দোকানে।

সন্দিপ সারগাওকারের সংস্থা এই মাস্ক তৈরি শুরু করার পরই বাজারে ছেয়ে গেছে এই রূপার মাস্ক। অন্যান্য সংস্থাগুলিও এবার বানাতে শুরু করেছে এই বিশেষ অলঙ্কার। তবে দামের তারতম্যের জন্য এখনও পর্যন্ত শুধুমাত্র রূপার তৈরি মাস্কই পাওয়া যাচ্ছে বাজারে। তবে বর্তমান বাজার দর অনুযায়ী একইরকম মাস্ক সোনা দিয়ে বানালে তার মূল্য হবে প্রায় ৮০,০০০ টাকা।

এ বিষয়ে সন্দিপ জানান, এই মাস্ক সাধারণত মানুষ একবারই পরেন, এটি সবসময় ব্যবহারের উপযোগী নয়। তাই বেশি দামি মাস্ক নেবেনা ক্রেতা। তাঁর তৈরি মাস্ক রূপার হওয়ায় এর মূল্য তুলনামূলক ভাবে কম এবং চাহিদাও বেশি। এই মাস্ক বানানো শুরুর এক সপ্তাহের মধ্যেই প্রায় ১০০টি মাস্ক বিক্রি করেছেন সন্দিপ এবং এখনও মাস্কের অর্ডার এসে চলেছে বলে জানান তিনি।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons