প্রয়াত মা, লকডাউনে ভিডিও কনফারেন্সেই শেষকৃত্যের সাক্ষী থাকেলেন ইরফান

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : শনিবার রাতেই নিজের বাসভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন ইরফান খানের মা সইদা বেগম। কিন্তু মায়ের মৃত্যু সংবাদ শেনার পরেও শেষকৃত্যে মায়ের পাশে থাকতে পারলেননা অভিনেতা। লকডাউনের জেরে সমস্ত যোগাযোগ বন্ধ থাকার কারনে মুম্বইয়ে বাড়তে বসেই ভিডিও কনফারেন্সে দেখলেন মায়ের শেষকৃত্য। মৃত্যুকালে মা সইদা বেগমের বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর।

জানা গিয়েছে, জয়পুরের বেনীওয়াল কান্তা কৃষ্ণা কলোনিতে ইরফান খানের পরিবারের বাকি সদস্যদের সাথেই থাকতেন মা সাইদা বেগম। পূর্বে রাজস্থানের মুসলিম রাজ্যের এক নবাবী পরিবারে জন্ম হয় তাঁর। দীর্ঘদিন থেকেই তিনি বার্ধক্যজনিত নানান সমস্যায় ভুগছিলেন বলে জানা গিয়েছে। একপরেই শনিবার মৃত্যুর পর সেদিনই শেষকৃত্য সম্পন্নও করা হয় সইদা বেগমের। এবিষয়ে ইরফান খানের ভাই তথা সইদার মেজ ছেলে জানান, ‘মা বেশকিছুদিন ধরে অসুস্থ ছিলেন, শনিবার তাঁর শারীরিক অবস্থায় অবনতি হয়। সম্প্রতি মা ইরফান ভাইয়ের স্বাস্থ্যের বিষয়ে খোঁজখবর নিয়েছিলেন। সেই নিয়ে একটু চিন্তায় ছিলেন তিনি।”

জয়পুরের উপকণ্ঠে চুঙ্গি নাকা কবরস্থানে কবরস্থ করা হয় সইদা বেগমকে। লকডাউনের জেরে তাঁর শেষকৃত্যে পৌঁছাতে পারেননি অনেকেই। এমনকি ভিডিও  কনফারেন্সের মাধ্যমে শেষকৃত্যে অংশ নিতে হয় বড় ছেলে ইরফানকে। এদিন ভিডিও কলেই কান্নায় ভেঙে পড়েন ইরফান। 

তবে ইরফান খান নিজেও এখনও পুরোপুরিভাবে সুস্থ হয়ে ওটেননি। বেশ কয়েকবছর আগে নিউরো এন্ড্রোক্রাইন টিউমার হয়েছিল তাঁর। যা থেকে পরে ক্যান্সারও ধরা পড়ে। তবে চিকিৎসার পর আপাতত অনেকখানি সুস্থ তিনি। 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons