দিল্লি নিয়ে সরব টলিউডের কলাকুশলী

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : দিল্লির হিংসা নিয়ে এবার বলিউডের পাশাপাশি মুখ খুলতে শুরু করেছেন টলিউডের অভিনেতারাও। সৃজিত মুখোপাধ্যায় থেকে শুরু করে পরমব্রত কিংবা নুসরত, টলিউডের একাধিক সেলেব মুখ খুলছেন দিল্লি নিয়ে।

বুধবার টুইটারের দেওয়ালে অভিনেত্রী তথা বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ নুসরত জাহান লেখেন, ‘দুঃখিত,হতাশ,ব্যাথিত..আমার দেশ জ্বলছে। ভুলে যেও না আমরা সবার আগে মানুষ..দয়া করে গুজব, ভুয়ো খবর এবং হিংসা ছড়াবেন না’।

গোটা ঘটনায় বিজেপিকে সরাসরি আক্রমণ করেন অভিনেতা অনিবার্ণ ভট্টাচার্য। টুইটারের দেওয়ালে অভিনেতা লেখেন, ‘ দিল্লী তে কি হচ্ছে, বি জে পি আই টি সেল একটু বলবেন ? আপনাদের কাছেই শুনব,কারণ দেশ তো আপনারাই গড়ছেন। টুকড়ে টুকড়ে খবর শুনে কি করব বলুন,আপনারাই বেশ করে বুঝিয়ে দিন তো,যাতে আমার এখনো না হওয়া কাল্পনিক সন্তানেরও মাথায় গেঁথে যায়। নিন,বোঝান..আচ্ছা, ট্রাম্প এখন কোথায় ?’

পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় এই পরিস্থিতিতে রবীন্দ্রনাথের লেখা ভারত ভাগ্যবিধাতা কবিতার পঙতি উল্লেখ করেছেন টুইটারে। হিংসা বিধ্বস্ত দিল্লির একটি ছবির সঙ্গে সৃজিত লেখেন.. ‘অহরহ তব আহ্বান প্রচারিত, শুনি তব উদার বাণী ,হিন্দু বৌদ্ধ শিখ জৈন পারসিক মুসলমান খৃস্টানী…’

ভবিষ্যত প্রজন্ম এই হিংসার জন্য আমাদের ক্ষমা করবে না বলেই মনে করছেন অভিনেতা পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। টুইট বার্তায় তিনি লেখেন, ‘না , এটা আর হতবাক করছে না। সাম্প্রদায়িক হিংসা খোলাখুলিভাবে জারি রয়েছে। আমাদের করুণ,অসহায় শ্রেনী থেকে সজাগ এবং সচেতনদের দল হয়ত নিজেদের একটা প্রতিচ্ছবি খুঁজে পাচ্ছে যার জন্য ভবিষ্যত প্রজন্ম আমাদের মনে রাখবে (দুর্ভাগ্যবশত) শিকারী হিসাবে। আনন্দে ঘুুমিয়ে থাকুন’।

এইরকম পরিস্থিতি চলতে থাকলে মানুষের অস্তিত্ব সংকটের মুখে পড়বে বলে মনে করছেন পরিচালক রাজ চক্রবর্তী। টুইটারে রাজ চক্রবর্তী লিখেছেন, ‘এইভাবে লড়াই করতে থাকলে আর মানুষ থাকবে না.. শুধু মন্দির আর মসজিদই পড়ে থাকবে’।

প্রসঙ্গত,   র‍্যাফ,আধাসেনা নামানোর পরও থামছে না হিংসা। পরিস্থিতি বিচার করে বুধবার ৩৫ কোম্পানি আধাসেনা থেকে বাড়িয়ে করা হয়েছে ৪৫ কোম্পানি।  শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত দিল্লি হিংসায় প্রাণ হারিয়েছেন ২৩ জন।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons