সুশান্তের মৃত্যু তদন্ত: মুম্বই পৌঁছোতেই পাটনার এসপিকে ‘জোর করে’ কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোর অভিযোগ

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু মামলার তদন্তে রবিবরাই মুম্বইতে পৌঁছান পাটনা (সেন্ট্রাল) এর এসপি বিনয় তিওয়ারি। সেদিনই তাঁকে ‘জোর করে’ কোয়ারেন্টিনে পাঠানোর অভিযোগ উঠল বৃহন্মুম্বই পৌরসভার বিরুদ্ধে। এমনই অভিযোগ করেছেন বিহার পুলিশের ডিজি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে।

গত মঙ্গলবার জানা যায় যে, রিয়া চক্রবর্তী সহ ৬ জনের বিরুদ্ধে সুশান্তের বাবা কেকে সিং পাটনার রাজীব নগর পুলিশ থানায় এফআইআর করেছেন। আত্মহত্যায় প্ররোচনা সহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের হয়েছে। সেই এফআইআরের ভিত্তিতেই মুম্বই পৌঁছায় বিহার পুলিশের চার সদস্যের একটি দল। আইপিএস মেসে থাকতে বলা হলে তিওয়ারি সেখানে থাকতে অস্বীকার করেন। তারপরই আইপিএস বিনয় তিওয়ারিকে কোয়ারিন্টিন করা হয়। তবে দলের বাকি সদস্যরা গত ৬ দিন মুম্বইতে থাকলেও কেন কোয়ারিন্টিন করা হল না তা নিয়ে প্রশ্ন উঠছে।

বিহার পুলিশের ডিজি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে টুইট করে বলেছেন যে, ‘অফিসের কাজেই রবিবার পাটনা থেকে মুম্বইতে পৌঁছেছেন বিনয় তিওয়ারি। সুশান্ত মৃত্যু মামলার তদন্তে বিহার পুলিশের যেসব অফিসার এখন মুম্বইতে রয়েছেন তাঁদের নেতৃত্ব দিতেই সেখানে গিয়েছেন তিনি। কিন্তু, ওই আইপিএস অফিসারকে জোর করে রাত ১১টার সময়ে কোয়ারিন্টিন করা হয়েছে।’ বহু আবেদন সত্ত্বেও তিওয়ারিকে আইপিএস মেসেও থাকতে দেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। আপাতত সে গুরগাঁওয়ের একটি গেস্ট হাউসে রয়েছেন বলে জানিয়েছেন ডিজি।

ইতিমধ্যেই সুন্তের মৃত্যু মামলা পাটনা থেকে সরিয়ে মুম্বইতে আনার জন্য সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছেন রিয়া চক্রবর্তী। তার প্রেক্ষিতে বিহার পুলিশ ও সুশান্তের বাবা কেকে সিং ক্যাভিয়েট দাখিল করেছেন।

গত ১৪ জুন বান্দ্রার ফ্ল্যাট থেকে অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের দেহ উদ্ধার হয়। সেই মৃত্যু মামলার তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশও। এই মামলায় ইতিমধ্যেই পরিচালক মহেশ ভাট, সিনেমা সমালোচক রাজীভ নাসান্দ, পরিচালর-প্রযোজক সঞ্জয়লীলা বনশালী, আদিত্য চোপড়া সহ ৪০ জনের বয়ান রেকর্ড করা হয়েছে।

Inform others ?
Share On Youtube
Show Buttons
Share On Youtube
Hide Buttons
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
Facebook
YouTube