সিদ্ধান্ত বদল, করোনা চিকিৎসায় ফের হাইড্রক্সিক্লোরোকুইনেই ভরসা হু-এর

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : নিজের সিদ্ধান্ত থেকে ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে ফের হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন প্রয়োগে ছাড়পত্র দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বা হু। কোভিড আক্রান্তদের হাইড্রক্সসিক্লোরোকুইন প্রয়োগের ফলে তাঁদের মৃত্যুর ঝঁকি অনেকখানি বাড়ছে এই দাবিতে গত ২৫ মে হাইড্রক্সসিক্লোরোকুইনের ট্রায়াল বাতিল করে হু। কিন্তু এবার সেই নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করী হল। সংস্থার তরফে এদিন জানিয়ে দেওয়া হয়, হু অনুমোদিত চিকিৎসায় এবার থেকে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারের ক্ষেত্রে কোনরকম বাধা থাকবেনা। 

ল্য়ান্সেট মেডিক্যাল জার্নালে প্রকাশিত রিপোর্টের ওপর ভিত্তি করে গত ২৫ মে হাইড্রক্সসিক্লোরোকুইনের ট্রায়ালের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিরেক্টর-জেনারেল টেড্রোস আধানম ঘেব্রিয়েসুস। এবিষয়ে তিনি বলেন, “সম্প্রতি প্রকাশিত একটি গবেষণাপত্রে জানা গিয়েছে এই ওষুধ প্রয়োগের ফলে রোগীর মৃত্যুর সম্ভাবনা বাড়ছে। তাই যতদিন না রোগীর সুরক্ষার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া যাচ্ছে, ততদিন হু সমর্থিত করোনার কোনও চিকিৎসা পদ্ধতিতে হাইড্রক্সসিক্লোরোকুইন ব্যবহার করা যাবে না।” যদিও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এই নিষেধাজ্ঞার পরেও বেশ কয়েকটি দেশে হাইড্রক্সসিক্লোরোকুইনের ব্যবহার অব্যাহত ছিল।

তবে বুধবার টেডরস আধানম জানান, হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন প্রয়োগে করোনা আক্রান্তে মৃত্যুর হার, পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া এবং কার্যকারিতা খতিয়ে দেখা হয়েছে। এই ওষুধ নিয়ে পর্যবেক্ষণ চালানোর স্বার্থে এতদিন এর ট্রায়াল বন্ধ রাখা হয়েছিল। কিন্তু সেই পর্যবেক্ষনের তথ্য পাওয়ার পর তা ব্যবহারে আর কোন বিধিনিষেধ থাকলনা। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ডিরেক্টর-জেনারেলের কথায়, “গত সপ্তাহে কার্যকরী সমিতি সাময়িকভাবে হাইড্রক্সিক্লোরোকুইন ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল। কারণ, এই ওষুধটি ব্যবহারের পর রোগীদের স্বাস্থ্য নিয়ে প্রশ্ন উঠছিল। এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছিল সতর্কতামূলক পদক্ষেপ হিসেবে। কিন্তু গত এক সপ্তাহে করোনায় মৃত্যুহার খতিয়ে দেখা গিয়েছে আগের চিকিৎসা পদ্ধতিতে পরিবর্তনের কোনও কারণ নেই। তাই আমরা আগের মতোই চিকিৎসা পদ্ধতি চালিয়ে যাচ্ছি।”

 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons