রান্না নিয়ে বচসা, স্বামীর হাতে খুন তরুণী

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : রান্না নিয়ে ঝামেলার জেরে তরুণী গৃহবধূকে পিটিয়ে খুন করার অভি‌যোগ উঠল স্বামী ও শ্বশুর-শাশুড়ির বিরুদ্ধে। মৃত ওই তরুণীর নাম কাকলি হালদার। ইতিমধ্যেই স্বামী ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

মৃতার পরিবারের তরফে পাওয়া খবর অনু‌যায়ী, গৌরাঙ্গ নগরের  নিবেদিত পল্লির বাসিন্দা রথীন হালদারের সঙ্গে প্রেম করে বিয়ে হয় সত্যজিৎ পল্লির বাসিন্দা কাকলি মণ্ডলের। ১০ মাস আগে রথীন নামের ওই ‌যুবকের সাথে পালিয়ে বিয়ে করেন কাকলি । কিন্তু মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে রথীন কাকলির বাড়িতে ফোন করে জানায় পেটের ব্যথায় কাকলি অজ্ঞান হয়ে পড়েছে। এইপরেই স্ত্রীকে আর জি কর হাসপাতালে নিয়ে ‌যায় সে। কিন্তু বাবা-মা ’র অবর্তমানে ওই তরুণীকে ভর্তি নিতে রাজি হয়না হাসপাতাল কর্তৃকক্ষ। খবর পেয়েই তড়িঘড়ি হাসপাতালে পৌঁছায় কাকলির পরিবারের লোকেরা। সেখানে গিয়ে তাঁরা জানতে পারেন কাকলির মৃত্যু হয়েছে।

মৃতার পরিবারের অভিযোগের,  এরপরই পাসপাতালে স্ত্রীর মৃতদেহ রেখে বাড়ি চলে ‌যান রথীন।  হাসপাতালের  কাজ মিটিয়েয় তারপর রথীনের বাড়িতে পৌঁছয় মৃতার বাপের বাড়ির লোকেরা।  তাঁদের প্রথমে জানানো হয়, রান্না নিয়ে ঝামেলা হওয়ায় গলায় ফাঁস দিয়ে  আত্মহত্যা করেন কাকলি। কিন্তু বাড়ির মধ্যে আত্মহত্যার কোনও চিহ্ন তাঁরা খুঁজে  না পাওয়ায় মৃতার পরিবারের তরফে অভিযোগ করা হয়, শ্বাসরোধ করে খুন করা হয়েছে তাঁদের মেয়েকে। মৃতার গলার কাছে আঘাতের চিহ্নও পাওয়া গিয়েছে।

এরপরেই নিউটাউন থানায় অভিযোগ জানায় মৃতার পরিবার। তাঁদের অভি‌যোগের ভিত্তিতে স্বামী ও শাশুড়িকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।  ঠিক কী কারনে মৃত্য হয়েছে তরুণীর তা ‌জানতেই জেরা করা হচ্ছে ধৃত দুজনকে।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons