রাজ্যে ফের বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার, নিশানায় তৃণমূল

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : রাজ্যে ফের বিজেপি কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার। এই ঘটনায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে নদিয়ার গয়েশপুরে। মৃতের নাম বিকাশ শীল(৩৪)। রবিবার সকালে আমগাছের ডালে ফাঁস লাগানো অবস্থায় বিকাশের দেহ ঝুলন্ত অবস্থায় দেখা যায়। এই ঘটনায় বিজেপির নিশানায় তৃণমূল। প্রতিবাদে সোমবার ১২ ঘন্টার কল্যাণী বনধের ডাক দিয়েছে বিজেপি।

গয়েশপুরের ২৩০ নম্বর বুথে বাড়ি বিকাশ শীলের। পেশায় দিনমজুর ছিল সে। প্রতিদিনের মতো শনিবারও সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হন বিকাশ। কিন্তু রাত পেরলেও সে বাড়ি ফেরেনি। ফলে তাঁকে খোঁজাখুঁজি শুরু হয়। তা সত্ত্বেও খোঁজ মেলেনি বিকাশের। রবিবার সকালে স্থানীয়রা তাঁর দেহ আমগাছের ডালে ফাঁস লাগা অবস্থায় দেখতে পান।

বিজেপির দাবি, বিকাশ তাদের দলের কর্মী ছিলেন। তাঁকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ গেরুয়া শিবিরর। এই ঘটনার পিছনে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূলের যোগ রয়েছে বলে দাবি পদ্ম শিবিরের। অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করা না হলে বৃহত্তর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি দিয়েছে বিজেপি নেতৃত্ব। দলের তরফে বলা হয়েছে, ‘বিজেপিকে রুখতে আর কত সন্ত্রাস চালাবে তৃণমূল? সন্ত্রাস চালিয়ে বিজেপিকে আটকানো যাবেনা। আমরা এই বিধ্বংসী শক্তির বিরুদ্ধে লড়ছি লড়বো …।’ কয়েক মাস আগেই হেমতাবাদের বিধায়কের ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়েছিল। তারপরও গেরুয়া শিবিরের বেশ কয়েকজন কর্মীর ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। প্রতিটি ক্ষেত্রেই তাঁদের কর্মীদের তৃণমূল হত্যা করেছে বলে অভিযোগ গেরুয়া বাহিনীর

বিকাশ শীলের দেহ উদ্ধারের পরপরই টুইটে বিজেপির সর্বভারতীয় সহসভাপতি মুকুল রায় লিখেছেন, ‘একই কায়দায় ফের খুন হল বিজেপি কর্মী। রাজ্যের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছে।’

এ রাজ্যে বিজেপির পর্যবেক্ষক অরবিন্দ মেনন টুইটে জানিয়েছেন, ‘তৃণমূল শাসনে বাংলার জনগণের ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা।’

ব্যারাকপুরের সাংসদ অর্জুন সিংয়ের টুইটবার্তা, ‘একটা সময় প্রতি রবিবার বাংলার মানুষ রামায়ণ, মহাভারত দেখার জন্য অপেক্ষা করতেন। আর এখন প্রতিদিনই কোনও না কোনও রাজনৈতিক দলের কর্মীর খুনের খবর পান।’

বিজেপি কর্মী বিকাশ শীলের মৃত্যুর ঘটনায় গয়েশপুরে উত্তেজনা রয়েছে। কল্যাণী থানার পুলিশ ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons