মিষ্টি দই রেসিপি: মিষ্টি দই বানানোর সহজ পদ্ধতি

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : উৎসব,অনুষ্ঠান বা পুজো পার্বণ হোক,বাঙালি বাড়িতে মিষ্টি দই এক অপরিহার্য অঙ্গ। ঘন দুধের সাথে চিনি গলিয়ে সেটাকে এমনি দই-র মত গেঁজিয়ে বা বসিয়ে তৈরি করা হয় মিষ্টি দই। এই মিষ্টি দেওয়া দইটি বানানো খুবই সোজা। কিন্তু দইটা বসতে সময় লেগে যায় প্রায় ১০-১২ ঘন্টা মত। সরযুক্ত ঘন দুধকে আরও ঘন করে প্রায় শুরু থেকে অর্ধেকে পরিণত করতে হবে। তারপর তাতে মেশাতে হয় গলানো চিনি। এরপর এতে দই মিশিয়ে বসতে দেওয়া হবে ফ্রিজে। এই যে সাদা টক দই এর টক ভাব, তার সাথে গলানো চিনির মিষ্টত্ব, দুটো মিলিয়ে একটা দারুণ স্বাদ নেয় এই পদটি। যদি মনে হয় একবার বাড়িতে চেষ্টা করে দেখবেন, চিন্তার কী আছে! ভিডিও দেখুন ও প্রতিটি ধাপ ছবি সহ দেখানোও আছেl মিষ্টি দই-র প্রস্তুতি প্রণালী। বাঙালি মিষ্টি দই-র প্রণালী। মিষ্টি দই-র প্রস্তুতি প্রণালী। দই কী করে মিষ্ট বানাবেন। মিষ্টি ইয়োগার্টের প্রণালী। মিষ্টি দই-র প্রস্তুতি প্রণালী। বাঙালি মিষ্টি দই-র প্রণালী। মিষ্টি দই-র প্রস্তুতি প্রণালী। দই কী করে মিষ্ট বানাবেন। মিষ্টি ইয়োগার্টের প্রণালী।

উপকরণ

 দুধ – ৭৫০ মিলি চিনি – ৭ ১/২ টেবিল চামচ জল – ১/৪ কাপ টাটকা দই – ১/২ কাপ বাদাম – সাজানোর জন্য অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল

কিভাবেন বানাবেন

১.একটা গরম প্যানে দুধটা ঢালুন। ২.এরপর এটা ফুটিয়ে অর্ধেক করে দিন। ৩.অন্যদিকে অন্য একটা প্যানে চিনিটা দিন। ৪.হালকা আঁচে নাড়তে থাকুন। ৫.এই নাড়াচাড়া করার মধ্যে মাঝে মাঝে গ্যাসটা বন্ধ করুন, আবার চালান। যাতে চিনিটা নিচে না ধরে যায়। ৬.বারবার এরকম করতে করতে এক সময় দেখবেন চিনিটা পুরো গলে গেছে এবং একটা হালকা বাদামি রঙ ধরবে। ৭.এবার গ্যাসটা পুরো বন্ধ করে জল দিন। ৮.ভাল করে মিশিয়ে একপাশে রেখে দিন। ৯.দুধটা অর্ধেক হয়ে গেলে,এবার এতে এই চিনির শিরাপটা ঢেলে দিন। ১০.ভাল করে মিশিয়ে গ্যাস থেকে নামিয়ে নিন। ১১.ঠাণ্ডা হতে দিন। মোটামুটি উষ্ণ গরম অবস্থায় এলে দেখুন। ১২.এবার টাটকা টক দইটা এর মধ্যে দিয়ে মেশান। ১৩.পরিবেশনের জন্য কেনা ছোট মাটির মটকায় এটা এবার ঢেলে নিন। ১৪.এবার এই মাটির মটকাগুলো অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে মুড়িয়ে দিন। ১২ ঘন্টার জন্য ফ্রিজে রাখুন। ১৬.পরিবেশনের আগে ফয়েল সরিয়ে ওপরে কুচনো বাদাম দিয়ে সাজিয়ে দিন। ১.টাটকা দই ব্যবহার করবেন। পুরনো খুব বেশি টক দই নয়। ২.গ্যাসটাকে খেয়াল করে বন্ধ করুন,আবার চালান। চিনি যেন নিচে ধরে না যায়। ৩.দইটা খুব ভাল করে মেশাবেন। দেখবেন যেন ভেতরে দলা না পাকিয়ে যায়। পরিবেশনের মাপ – ১ টা ক্যালরি – ১৫২ ফ্যাট – ৫ গ্রা প্রোটিন – ৪ গ্রা কার্বোহাইড্রেট – ২৩ গ্রা চিনি – ১৯ গ্রা মিষ্টি দই বানানোর বিস্তারিত বর্ণনা: ১.একটা গরম প্যানে দুধটা ঢালুন। ২.এরপর এটা ফুটিয়ে অর্ধেক করে দিন। ৩.অন্যদিকে অন্য একটা প্যানে চিনিটা দিন। ৪.হালকা আঁচে নাড়তে থাকুন। ৫.এই নাড়াচাড়া করার মধ্যে মাঝে মাঝে গ্যাসটা বন্ধ করুন, আবার চালান। যাতে চিনিটা নিচে না ধরে যায়। ৬.বারবার এরকম করতে করতে এক সময় দেখবেন চিনিটা পুরো গলে গেছে এবং একটা হালকা বাদামি রঙ ধরবে। ৭.এবার গ্যাসটা পুরো বন্ধ করে জল দিন। ৮.ভাল করে মিশিয়ে একপাশে রেখে দিন। ৯.দুধটা অর্ধেক হয়ে গেলে,এবার এতে এই চিনির শিরাপটা ঢেলে দিন। ১০.ভাল করে মিশিয়ে গ্যাস থেকে নামিয়ে নিন। ১১.ঠাণ্ডা হতে দিন। মোটামুটি উষ্ণ গরম অবস্থায় এলে দেখুন। ১২.এবার টাটকা টক দইটা এর মধ্যে দিয়ে মেশান। ১৩.পরিবেশনের জন্য কেনা ছোট মাটির মটকায় এটা এবার ঢেলে নিন। ১৪.এবার এই মাটির মটকাগুলো অ্যালুমিনিয়াম ফয়েল দিয়ে মুড়িয়ে দিন। ১২ ঘন্টার জন্য ফ্রিজে রাখুন। ১৬.পরিবেশনের আগে ফয়েল সরিয়ে ওপরে কুচনো বাদাম দিয়ে সাজিয়ে দিন।

Inform others ?
Share On Youtube
Show Buttons
Share On Youtube
Hide Buttons
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
Facebook
YouTube