মণীশখুনের ঘটনায় দুই পুরপ্রধানকে তলব সিআইডির! বেলেঘাটা কাণ্ডে ক্লাবকর্তাদের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : প্রথমটি খুনের ঘটনা ও দ্বিতীয়টি বিস্ফোরণের। প্রথমটির ক্ষেত্রে তদন্তে নেমেছে সিআইডি, অন্যটিতে এনআইএ। এবার এই দুই তদন্তকারী সংস্থাই এই দুই ঘটনার জন্য বেশ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলম করতে শুরু করে দিল। মণীষ শুক্লা হত্যাকাণ্ডের তদন্তভার রয়েছে সিআইডি’র হাতে আর বেলেঘাটা বিস্ফোরণের ঘটনায় সদ্য সদ্য তদন্তে নেমেছে এনআইএ। এই তদন্তের স্বার্থে মণীষ খুনের ঘটনার জন্য ব্যারাকপুর ও টিটাগড়ের দুই পুরপ্রধানকে তলব করল সিআইডি। বেলেঘাটা বিস্ফোরণ কাণ্ডে ক্লাবকর্তাদের তলব করেছে এনআইএ। এবার দেখার বিষয় এই দুই তদন্তের জল কোন দিকে গড়ায়।

মনীশ শুক্লা খুনের ঘটনায় ব্যারাকপুর ও টিটাগড় পুরসভার দুই বিদায়ী পুরপ্রধান উত্তম দাস ও প্রশান্ত চৌধুরীকে তলব করল সিআইডি। এই খুনের ঘটনায় এই প্রথম সিআইডি কাউকে তলব করল। এখনও পর্যন্ত এই কেসে তিনজনকে পাকড়াও করেছে সিআইডি। মণীশ শুক্লর বাবার করা এফআইআরে উত্তম দাস ও প্রশান্ত চৌধুরীর নাম ছিল। সেই কারনেই তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করতে তাঁদের ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। মণীশ খুনের দিন কোথায় ছিলেন তাঁরা? মণীশ-হত্যা নিয়ে তাঁদের কী মতামত, এইসব জিজ্ঞাসা করা হতে পারে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। একই সঙ্গে এটাও জানা গিয়েছে যে, মণীষের সঙ্গে সাম্প্রতিককালে কিছু মতভেদ তৈরি হয়েছিল ব্যারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংয়ের। সেক্ষেত্রে তাঁকেও সিআইডি তলব করতে পারে যে কোনওদিন।
 
অন্যদিকে বেলেঘাটা বিস্ফোরণকাণ্ডে তদন্তে নেমে পড়লো এনআইএ। ওই বিস্ফোরণের ঘটনায় এখনও ফরেন্সিক রিপোর্ট এনআইএ’র হাতে আসেনি। সেই রিপোর্ট এলেই ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাবে এই কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থার আধিকারিকেরা। তবে ঘটনার জেরে এনআইএ আজই ক্লাবের সেক্রেটারি, প্রেসিডেন্ট এবং কেয়ারটেকরকে তলব করেছে। কারন পুলিশের প্রাথমিক তদন্তে উঠে এসেছে, বোমা বাইরে থেকে ছোঁড়া হয়নি বরঞ্চ ক্লাবেই মজুত ছিল বিস্ফোরক সামগ্রী। ঘটনাস্থল থেকে প্রচুর পরিমাণে স্প্লিন্টারও বাজেয়াপ্ত হয়েছে। পাওয়া গিয়েছে জালকাঠিও। তাই এই ক্লাবকর্তাদের জিজ্ঞাসা করেই এই ঘটনার শিকড়ে পৌঁছেতে চাইছেন এনআইএ’র আধিকারিকেরা। তাঁদের ধারনা আসন্ন রাজ্য বিধানসভা নির্বাচনে ব্যবহার করার জন্যই ওই ক্লাবের বোমা তৈরির কাজ চলছিল।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons