ভ্যাপসা গরমে হাঁসফাঁস দক্ষিণবঙ্গ, সন্ধ্যায় বৃষ্টির পূর্বাভাস হাওয়া অফিসের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : আমফানের ধ্বংসলীলা থেকে এখনও মুক্ত নয় রাজ্যের একাধিক এলাকা। কিন্তু আবাহাওয়া যেন এক ধাক্কায় ঘুরে গেছে ১৮০ ডিগ্রি। প্রচন্ড দাবদাহে যেন হাঁসফাঁস  করছে কলকাতা সহ দক্ষিনবঙ্গের মানুষ। আনলক ১-এ ইতিমধ্যেই খুলে গিয়েছে রাজ্যের সরকারি এবং বেসরকারি সমস্ত কার্মস্থল। আর মহানগরের পথে বেসরকারি বাসে সেখানে পৌঁছাতে রীতিমতো ঘাম ছুটে যাচ্ছে সাধারণ মানুষের। তবে এই পরিস্থিতিতে এবার নতুন করে সুখবর শোনাল হাওয়া অফিস। 

আলিপুর আবহাওয়া দফতরের তরফে জানা গিয়েছে, বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ায় আর্দ্রতা জনিত অস্বস্তিতে ভুগছে দক্ষিনবঙ্গের মানুষ তবে উত্তরবঙ্গে পাহাড় থেকে ডুয়ার্স সর্বত্র বিপুল পরিমান বৃষ্টি চলছে। কিন্তু দক্ষিনবঙ্গের চিত্রটা সন্ধ্যের দিকে বেশ খানিকটা বদলাতে পারে বলে আশা প্রকাশ করেছে হাওয়া অফিস। শনিবার বিকেলের পর থেকেই হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টিতে ভিজতে পারে কলকাতা সহ রাজ্যের বিভিন্ন এলাকা। এছাড়া রবিবার বঙ্গোপসাগর থেকে নিম্নচাপ তৈরি হতে পারে। ফলে ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে ওড়িশা সংলগ্ন জেলা ও উপকূল অঞ্চলে। শহরতলীতেও এই নিম্নচাপের প্রভাব পড়বে। আগামী সপ্তাহেও যার জেরে ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

আবহাওয়াবিদরা জানাচ্ছেন, মধ্যপ্রদেশের তৈরি নিম্নচাপটি উত্তরপ্রদেশের দিকে সরে গেলে তা ক্রমেই দুর্বল হবে। তারপর বঙ্গোপসাগরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় হবে। ৮ জুন নাগাদ মায়ানমার উপকূলের কাছে নতুন নিম্নচাপটির তৈরি হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে। তবে তার ক্ষমতা ও গতিপথের ওপর নির্ভর করছে বাংলার বর্ষার ভবিষ্যৎ। 

শুক্রবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ২৬.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি নিচে। এদিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৫.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রি ওপরে। আর্দ্রতার পরিমাণ সর্বোচ্চ ৮৭ শতাংশ , সর্বনিম্ন ৬০ শতাংশ। বৃষ্টি হয়নি। তবে আজ অল্প বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে কলকাতায়। শহরের তাপমাত্রা থাকবে সর্বোচ্চ ৩৭ থেকে সর্বনিম্ন ২৯ ডিগ্রি সেলসিয়াসের আশেপাশে।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons