ভারতে করোনা ভাইরাসের জিন দুর্বল, আতঙ্কের মধ্যেও আশার বাণী শোনালেন বিজ্ঞানীরা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : বর্তমানে করোনা যেন দেশবাসীর কাছে রীতিমতো আতঙ্কের বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। যেভাবে দেশজুড়ে মারণ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে তাতে চিন্তায় মাথায় হাত পড়েছে দেশের প্রশাসনের। এই পরিস্থিতিতে এবার এক খুশির খবর শোনাল সিএসআইআর। তাঁদের গবেষনার তথ্য বেশ খানকটা স্বস্তি দিতে পারে দেশের প্রশাসন সহ সাধারণ মানুষকে। 

সিএসআইআর-এর বিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, তাঁদের গবেষণায় জানা গিয়েছে ভারতে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসের জিন নাকি অনেক বেশি দুর্বল। যার ফলে এই ভাইরাসের শক্তিও অনেকখানি কম। আর এই মারণ ভাইরাসের বিরুদ্ধে লড়াই করাও নাকি অনেকখানি সহজ। 

সিএসআইআর বিজ্ঞানীরা দেশের সবথেকে বেশি সংক্রমিত রাজ্য তথা মহারাষ্ট্র, তেলঙ্গানা, দিল্লি ও তামিলনাড়ুর রোগীদের শরীর থেকে নমুনা সংগ্রহ করেন। তা পরীক্ষার পরেই এই মারণ ভাইরাসের স্ট্রেন দেখে চমকে ওঠেন তাঁরা। পরে নমুনা নিয়ে গবেষণা করতে গিয়ে বিজ্ঞানীরা এর জিনের গঠন বিশ্লেষন করেন। এর থেকে বিজ্ঞানীরা জানতে পারেন ভাইরাসের গঠন অত্যন্ত দুর্বল। এবং এই ভাইরাসটি খুব বেশি জিনের পরিবর্তন ঘটাচ্ছেনা। এমনকি এর শক্তিও বিশ্বের অন্যান্য প্রান্তের ভাইরাসের তুলনায় অনেকখানি কম। ফলে সংক্রমণ ছড়াবার ক্ষমতাও অনেক সীমিত। এই ভাইরাসের জিনের গঠন-বিন্যাস নিয়ে বিজ্ঞানীরা সেলুলার অ্যান্ড মলিকিউলার বায়োলজি-র গবেষণাগারে বিশ্লেষম করেন। সেখানেই জিনোম সিকোয়েন্স নিয়ে কাজ করছেন তাঁরা।

গবেষকরা জানিয়েছেন, “জিনের গঠন-বিন্যাস কতটা বদলাচ্ছে, কী কী পরিবর্তন হচ্ছে সেটা দেখতে গিয়েই বিশেষ একরকমের ক্লাস্টার সিকুয়েন্স খুঁজে পেয়েছেন তাঁরা। ৬৪টি ভাইরাল স্ট্রেনের পূর্ণাঙ্গ গঠন বিন্যাস সাজিয়ে এমন ক্লাস্টার পাওয়া গেছে।” এখনেই শেষ না করে বিজ্ঞানীরা আরও বলেন, “এই ফাইলোজেনেটিক ক্লাস্টারের নাম Clade I / A3i। ”প্রায় ৪১ শতাংশ ভারতীয়দের শরীর থেকে নেওয়া ভাইরাল স্ট্রেনের জিনোম সিকুয়েন্সে এই ক্লাস্টারের সন্ধান মিলেছে।

Inform others ?
Share On Youtube
Show Buttons
Share On Youtube
Hide Buttons
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
Facebook
YouTube