প্রাণোচ্ছ্বল সংগীত পরিচালক ওয়াজিদের প্রয়ানে শোকপ্রকাশ বলিপাড়ায়

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : করোনার মধ্যে দেশজুড়ে যেভাবে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা বাড়ছে তাতে চিন্তার মধ্য়ে পড়েছে দেশের প্রশাসন। করোনা দেশের বিভিন্ন প্রান্তের মতো থাবা বসিয়েছে বলিউডেও। এবার সেই মারণ ভাইরাসের বলি হলেন ওয়াজিদ খান। রবিবার রাতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই বলিউডের বিশিষ্ট সংগীত পরিচালক। ইতিমধ্য়েই তাঁর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন অমিতাভ বচ্চন থেকে শুরু করে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, বিপাশা বসু, বরুণ ধাওয়ান, প্রীতি জিন্টা-সহ অনেকেই।

গত দুমাসে এক এক করে নক্ষত্রপতন ঘটেছে বলিউডে। ইরফান খানের অকাল প্রয়ানে শোকের ছায়া নেমে আসে। সেই শোক কাটতে না কাটতেই প্রায়াত হন ঋষি কাপুর। তারপর এক এক করে যোগেশ গৌর, মোহিত বাঘেল, শচিন কুমার….। তার পরেই এবার করোনা আক্রান্ত হয়ে চিরনিদ্রায় বিলিন হলেন বলিউডের প্রথম সারির সংগীত পরিচালক ওয়াজিদ। তাঁর মৃত্যুতে এদিন শোক প্রকাশ করে সোনু বলেন, তিনি তাঁর ভাইকে হারালেন।

এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় শোক প্রকাশ করে অমিতাভ বচ্চন লেখেন, ‘ওয়াজিদ খানের মৃত্যুতে আমি স্তম্ভিত। উজ্জ্বল, হাসিখুশি এক শিল্পী চলে গেলেন।’

 

ট্য়ুইট করে বরুণ ধাওয়ান লেখেন, ‘খবরটা শুনে অত্যন্ত বিস্মিত হলাম। ওয়াজিদ ভাই আমার এবং আমার পরিবারের অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন। আশপাশে যত পজিটিভ মানুষ আছেন, ওয়াজিদ তাঁদের মধ্যে অন্যতম। তোমাকে খুব মনে পড়বে। তোমার গানের জন্য ধন্যবাদ ওয়াজিদ ভাই।’

শোক প্রকাশ করে ট্যুইটে পরিণীতি চোপড়া লেখেন, ‘সবসময় হাসতেন। সবসময় গান গাইতেন। ওঁর সঙ্গে সব মিউজিক সেশন মনে রাখার মতো। আমরা সত্যিই আপনাকে মিস করব।’

শোকবার্তায় প্রিয়াঙ্কা চোপড়া লেখেন, ‘দুঃখজনক খবর। ওয়াজিদ ভাইয়ের হাসিটা আমার সবসময় মনে থাকবে। সবসময় হাসতেন। খুব তাড়াতাড়ি চলে গেলেন। ওঁর পরিবারের প্রতি আমার সমবেদনা রইল। শান্তিতে থেকো বন্ধু।’

আগে থেকেই কিডনির সমস্য়ায় ভুগছিলেন ওয়াজিদ। তাঁর কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্টও হয়েছিল। আর এি কিডনির সমস্যার কারনে আগেও একাধিকবার হাসপাতালে ভর্তি হতে হয় তাঁকে। কিন্তু বহুবার মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এসেছেন তিনি। তবে ফের দিনকয়েক আগে কিডনির সমস্যা হওয়ায় মুম্বইয়ের এক বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় এই সঙ্গিত পরিচালককে। অবস্থা সংকটজনক হওয়ার কারনে তাকে চারদিন ভেন্টিলেশনেও রাখা হয়। পরে তিনি করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন বলে জানা যায়। ওকদিকে কিডনির সমস্যা অন্যদিকে মারণ ভাইরাস করোনা। ক্রমাগত লড়াই চালিয়ে যান ওয়াজিদ। কিন্তু রবিবার রাতে অবশেষে থামতে হয় তাঁকে। মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন প্রাণোচ্ছ্বল এই সংগীত পরিচালক।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons