পৌঁছালো নিম্নমানের চিকিৎসা সামগ্রী-ক্ষুব্ধ চিকিৎসকেরা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : করোনাভাইরাস সংক্রমণে তাঁরাই আমাদের রক্ষাকর্তা। প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে লড়ছেন ক্রমাগত। তারা হলেন চিকিৎসক, নার্স ও হাসপাতালের অন্যান্য কর্মীরা।

 কিন্তু তাদের জীবন নিয়ে ছেলেখেলা করার অভিযোগ উঠল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সরকারের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, যে পোশাক পরে কোভিড-১৯ আক্রান্তদের চিকিৎসা করতে হয়, সেই পি পি ই বা পার্সোনাল প্রোটেকটিভ ইকুইপমেন্টের বদলে হাসপাতালগুলিতে পাঠানো হয়েছে সস্তার রেইন কোট। যা দেখে হতবাক চিকিৎসকরা। কিছুটা ক্ষিপ্ত ও ।এই পোশাক পরে করোনারোগীর চিকিৎসা করা নিরাপদ নয়। সংক্রমণের আশঙ্কা রয়েছে বলে জানান তাঁরা।

রাজ্যে করোনা সংক্রমণ দেখা দেওয়ার পরেই চিকিৎসা সামগ্রী যথেষ্ট যোগান আছে বলে আশ্বাস দিয়েছিলেন মমতা। সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছিলেন ২ লক্ষ পি পি ই, দু লক্ষ মাস্ক অর্ডার দিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর।

 এই পোশাক হয় মাথার চুল থেকে পায়ের নখ পর্যন্ত ঢাকা ।

এই পোশাক পরেই করোনা আক্রান্তদের চিকিৎসা করতে হয়। কিন্তু রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালের চিকিৎসকদের অভিযোগ। তাঁদের কাছে পি পি ই নামে যে বস্তু পাঠানো হয়েছে তা আসলে স্বল্পমূল্যের রেইন কোট।

চিকিৎসকদের দাবি, এই পোশাক পরে করোনারোগীর চিকিৎসা করতে গেলে সংক্রমণ অনিবার্য। কারণ পি পি ই সম্পূর্ণ বায়ুনিরুদ্ধ একটি পোশাক। সেখানে রেইন কোটে বুকে কোমরে বায়ু চলাচলের সুযোগ থাকছে। গলার কাছেও বায়ু প্রবেশের পর্যাপ্ত জায়গা রয়েছে। যা কখনোই তাদের জন্য নিরাপদ নয়।

একই সঙ্গে চিকিৎসকদের অভিযোগ, তাদের জন্য সরকারের তরফে যে গ্লাভস ও মাস্ক পৌঁছেছে, তাও নিম্নমানের। নিজেদের নিরাপত্তা নিয়ে চিন্তিত ও ক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা।

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons