পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু কোভ্যাক্সিনের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক :  

করোনাকে হারাতে ভারতে তৈরি হয়েছে কোভ্যাক্সিন। শুক্রবার থেকে মানবশরীরে ওই টিকার পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু হল। দিল্লির এইমস হাসপাতালে বছর তিরিশের এক যুবকের শরীরে প্রয়োগ করা হল সেটি। আপাতত কোভ্যাক্সিন প্রয়োগের পর ওই যুবক কেমন থাকেন এবং শরীরে কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া হয় কিনা তা জানতে ৭ দিন কড়া চিকিৎসা পর্যবেক্ষণে রাখা হবে তাঁকে। এইমসের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক তথা করোনা টিকার মানবশরীরে পরীক্ষামূলক ব্যবহারের বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত চিকিৎসক সঞ্জয় রাই জানিয়েছেন যে, গত শনিবার থেকে এইমসে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি স্বেচ্ছাসেবক ওই ভ্যাকসিনের পরীক্ষামূলক ব্যবহারের জন্যে নিজেদের নাম নথিভুক্ত করেছেন। তাঁদের মধ্যে থেকে ২২ জনের দেহে প্রথম পর্যায়ে করোনার টিকাটি প্রয়োগ করা হবে বলে খবর।

সঞ্জয় রাই বলেন, “দিল্লির বাসিন্দা প্রথম স্বেচ্ছাসেবক ওই যুবককে দিন দুয়েক আগে থেকেই নানা পরীক্ষানিরীক্ষার মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে। মোটামুটি তাঁর স্বাস্থ্য স্বাভাবিক। তাছাড়া তাঁরও কোনও কোমর্বিডিটির সমস্যাও নেই।”

তিনি আরও জানান, “আজ (শুক্রবার) দুপুর দেড়টা নাগাদ ইন্ট্রামাসকুলার ইঞ্জেকশনের মাধ্যমে ওই স্বেচ্ছাসেবকের দেহে ০.৫ মিলিগ্রাম কোভ্যাক্সিন পরীক্ষামূলক ভাবে প্রয়োগ করা হয়েছে। আগামী সাত দিন ওই স্বেচ্ছাসেবককে কড়া পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।”

শনিবার আরও কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবকের শরীরে ওই করোনা টিকার প্রয়োগ করা হবে বলে জানিয়েছেন এইমসের গবেষকরা। তবে সকলের ক্ষেত্রেই গোটা শরীরের নানা পরীক্ষা-নিরিক্ষার পরেই কোভ্যাক্সিন প্রয়োগ করা হবে, তার আগে নয়। 

ড্রাগস কন্ট্রোলার জেনারেল অব ইন্ডিয়ার তরফে প্রথম ও দ্বিতীয় ধাপে মানবশরীরে কোভ্যাক্সিন প্রয়োগের অনুমোদন দেওয়ার পরেই যাঁরা নিজেদের শরীরে এই টিকা প্রয়োগ করতে চান তাঁদের আবেদন করতে বলা হয়েছিল। আগ্রহীদের মধ্যে থেকে গত শনিবার এইমসের নীতি নির্ধারক কমিটি মোট ১০০ জনের দেহে করোনার টিকা প্রয়োগের ছাড়পত্র দিয়েছে। তবে সব মিলিয়ে প্রথম ধাপে মোট ৩৭৫ জনের শরীরে টিকা টি প্রয়োগ করা হবে। পরবর্তীতে দ্বিতীয় ধাপে দেশের ১২টি আলাদা আলাদা জায়গা থেকে মোট ৭৫০ জনের শরীরে প্রয়োগ করা হবে কোভ্যাক্সিন।

Inform others ?
Share On Youtube
Show Buttons
Share On Youtube
Hide Buttons
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
Facebook
YouTube