নিসর্গের জের! শক্তিধর ঘূর্ণিঝড়ে প্রাণ হারালেন ৩ জন

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : একদিকে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতি দিনের পর দিন সংকটজনক হয়ে উঠছে। তার মধ্যেই এবার নতুন করে রাজ্যবাসীর কাছে আতঙ্কের কারন হয়ে দাঁড়িয়েছিল ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ। মৌসম ভবনের তরফে আগেই জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল ২ থেকে ৩ মে-এর মধ্যে প্রবল শক্তি সঞ্চয় করে ভারতের পশ্চিম উপকূলবর্তী এলাকায় আছড়ে পড়বে এই ঘূর্ণিঝড়। তবে ২ মে তথা বুধবার দুপুর ১টা নাগাদ এই ঘূর্ণিঝড় মহারাষ্ট্রের ওপর আছড়ে পড়ে। বাণিজ্যনগরীর বেশ কিছু এলাকায় তান্ডব চালায় নিসর্গ। যার জেরে এখনও পর্যন্ত তিনজনর প্রাণহানীর খবর মিলেছে।

কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দপ্তরের তরফে বলা হয়েছিল, প্রায় ১৪০ বছর পর এক বিশাল শক্তিধর ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়তে চলেছে মহারাষ্ট্রের ওপর। এই বার্তার পরেই নড়চড়ে বসে দেশের প্রশাসন। ক্ষয়ক্ষতি এড়াতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি এবং কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ পরিস্থিতির উপর প্রতি মুহূর্তে নজর রাখেন এবং ঝড় মোকাবিলার জন্য যাবতীয় প্রস্তুতি নেন। তবে যে পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হয়েছিল তা করতে সমর্থ হয়নি নিসর্গ। বাণিজ্যনগরীতে ইতিমধ্যেই যে ধ্বংসলীলা চালিয়েছে নিসর্গ তা অনুমানের তুলনায় অনেক কম ক্ষয়ক্ষতি করেছে। এমনকি ঘূর্ণিঝড়ের তান্ডবে প্রাণহানীর সংখ্যাও বেশ কম।

বুধবার বেলা ১২ টার থেকেই ঘূর্ণিঝড় নিসর্গ এক এক করে তার তান্ডবলীলা চালায় মহারাষ্ট্রের উপকূল, গুজরাটের দক্ষিণাংশ, নগর হাভেলি, দমন, দিউ- এই সমস্ত এলাকাগুলিতে। ঝড়ের গতিবেগ ছিল ঘন্টায় ১১০-১২০ কিলোমিটার। প্রথমদিকে শক্তি সঞ্চয় করে এই ঘূর্ণিঝড় মহরাষ্ট্রের দিকে আগ্রসর হতে গেলেই যাত্রাপথেই তা অনেকখানি শক্তি হারিয়ে ফেলে বলে দাবি আবহাওয়া দফতরের। যার ফলে মহরাষ্ট্রে ধ্বংসলীলা চালাতে ব্যর্থ হয় এই ঘূর্ণিঝড়। তবে নিসর্গের জেরে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে আলিবাগে। প্রায় ৫১ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে সেখানে। এছাড়া কোলাবায় বৃষ্টির পরিমান ৪৩ মিলিমিটার, রত্নাগিরিতে ৩৮ মিলিমিটার এবং সান্তাক্রুজে ১৯ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।

আলিবাগের উমতে গ্রামে বিদ্যুতের খুঁটি পড়ে প্রাণ হারান ৫৮ বছর বয়সী ব্যক্তি। ঘূর্ণিঝড়ের দাপটে মৃত্যু হয়েছে পুনের বছর পঁয়ষট্টির এক মহিলা এবং ৫২ বছর বয়সি এক ব্যক্তির। অন্যদিকে মোট আহতের সংখ্যা ৭। তাঁদের মধ্যে চার জন রত্নাগিরি জেলার এবং তিন জন মুম্বইয়ে বাসিন্দা।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons