চিঁড়ের মধ্যে ভারতের মানচিত্র, ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে নাম লেখালেন শান্তিপুরের তরুণ

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : ডিমের খোলা দিয়ে কোন মণিষীর অবয়ব হোক বা পেনসিলের সিস দিয়ে দূর্গা প্রতিমা তৈরি, বিভিন্ন ক্ষেত্রেই নানা নতুন নতুন শিল্পীসত্ত্বার পরিচয় পেয়েছি। এবার ফের চিঁড়ের মধ্যে ভারতের মানচিত্র এঁকে সকলের প্রশংসা কুড়িয়েছেন বছরে কুড়ির শিল্পী শাওন পাল। তাঁর এই বিস্ময়কর শিল্পকর্ম ইতিমধ্যেই জায়গা করে নিয়েছে ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে।

এই শিল্পকর্ম প্রসঙ্গে শাওন বলেন, “ছোট থেকেই কিছু একটা করার ইচ্ছা ছিল। আমার ছবি আঁকার শখ আছে। বর্তমানে আমি আঁকাও শেখাই। তবে শেষ পর্যন্ত আমার নাম যে ইন্ডিয়া বুক অব রেকর্ডে উঠবে, তা আমি সত্যিই ভাবতে পারিনি।” তবে আবার এশিয়া রেকর্ড করার লক্ষ্য রয়েছে শাওনের।  এবং সেটা পেলেই তাঁর চোখ থাকবে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের দিকে।

নদিয়ার শান্তিপুর পুরসভার এক নম্বর ওয়ার্ডের অদ্বৈত লেনের বাসিন্দা শাওন পাল। বর্তমানে সে বিজনেস ম্যানেজমেন্টের ছাত্র। শাওনের বাবা মানিক পাল পেশায় একজন স্বর্নশিল্পী। অন্যদিকে মা শিপ্রা পাল গৃহবধূ। শাওনেই একটি বোনও রয়াছে। ছোট থেকেই তাঁর শখ ছবি আঁকার।  কৃষ্ণনগর এবং শান্তিপুরের শিল্পীদের কাছে থেকেই আঁকায় হাতেখড়ি তাঁর। গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসের কথা মাথায় রেখে ৮ জানুয়ারি রাতে ভারতের ক্ষুদ্রতম মানচিত্র আঁকার প্রচেষ্টা চালান শাওন। ইতিমধ্যেই শান্তিপুরের ফুলিয়ার ছেলে অনুপম সরকারের নাম উঠেছে গিনেস বুক অফ ওয়ার্ল্ড রেকর্ডসে। তাঁকেই আদর্শ মেনে এবার সেপথে হাঁটলেন শান্তিপুরের ছেলে শাওন।

শাওনের কথায়, “৮ জানুয়ারি ভারতের ক্ষুদ্রতম মানচিত্র আঁকার চেষ্টা শুরু করি। প্রথমে ভেবেছিলাম, ছোলার ডাল, চাল অথবা চিনির উপর মানচিত্র আঁকব। পরে চিঁড়ের উপরে আঁকা শুরু করি। সূচের ডগায় কালো কালি ব্যবহার করে এঁকে ফেলি ভারতের সবচেয়ে ক্ষুদ্র মানচিত্র।” এরপর শাওন বলেন, “ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডস কর্তৃপক্ষ আমাকে ছবি আঁকার ভিডিও এবং দু’জন সাক্ষীর শংসাপত্র পাঠাতে বলেন। এরপর আমাদের দু’জন শিক্ষকের সামনে ভিডিও তৈরি করে পাঠিয়ে দিই। তিনদিন পরই জানতে পারি, আমার শিল্পকর্ম ইন্ডিয়া বুক অফ রেকর্ডসে স্থান পেয়েছে।”

৬ ফেব্রুয়ারি ইন্ডিয়া বুক অব রেকর্ডস কর্তৃপক্ষের তরফে শংসাপত্র, মেডেল, ব্যাজ, পেন ও পরিচয়পত্র পান শাওন। জানা গিয়েছে, চিড়ের ওপর শাওনের আঁকা ভারতের মানচিত্রের দৈর্ঘ্য মাত্র ১.৫ সেন্টিমিটার এবং প্রস্থ ০.৫ সেন্টিমিটার। শাওন জানিয়েছেন এর আগে কেউ চিড়েই ওপর মানচিত্র আঁকেননি। তাই কিছু নতুন করার আশায় এই বিষয়টিকে নির্বাচন করেছেন তিনি।  

Inform others ?
Share On Youtube
Show Buttons
Share On Youtube
Hide Buttons
Wordpress Social Share Plugin powered by Ultimatelysocial
Facebook
YouTube