কয়েক কোটির ফসলে কোপ, পঙ্গপাল রুখতে নয়া পদক্ষেপ কৃষিমন্ত্রকের

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : করোনার জেরে যখন আতঙ্কে গোটা দেশ তখন ফের নতুন করে চিন্তার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে পঙ্গপাল। রাজস্থান থেকে শুরু করে এক এক করে পাঞ্জাব, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্রের বিস্তীর্ণ এলাকায় দাপিয়ে বেড়াচ্ছে পঙ্গপালের দল। যার জেরে সবচেয়ে বেশি সংকটের মুখে পড়েছেন চাষিরা। যদিও দেশে আগে থেকেই পঙ্গপাল হানার আশঙ্কা ছিল কিন্তু তখন কেন্দ্র সরকারের তরফে য়েভাবে কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়নি। তবে এবার কোটি কোটি টাকার ফসল ক্ষতির মুখে পড়ায় নড়েচড়ে বসল কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রক। তাই দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পঙ্গপাল হানা রুখতে বুধবার কেন্দ্রের তরফে বেশ কয়েকটি পদক্ষেপ ঘোষণা করা হয়েছে।

কৃষিমন্ত্রকের তরফে জানা গিয়েছে, ৫টি রাজ্যে মোট ২০০টি অস্থায়ী পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রক দপ্তর তৈরি হয়েছে। এই দপ্তরগুলি জেলা প্রশাসন এবং রাজ্য সরকারের সঙ্গে সমন্বয় সাধন করে পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রনের কাজ করবে। সরকারি সুত্রের খবর, রাজস্থানের ২১টি, মধ্যপ্রদেশের ১৮টি, পাঞ্জাবের ১টি এবং গুজরাটের ২টি জেলায় পঙ্গপালের তান্ডব নিয়ন্ত্রনে আনা হয়েছে। ইতিমধ্যেই ব্রিটেন থেকে ৬০টি অত্যাধুনিক স্প্রে  যন্ত্র আনা হয়েছে। এছাড়া কীটনাশক ছড়াতে দমকলের ৮৯টি ইঞ্জিন, ১২০টি পর্যবেক্ষক যান, ৮১০টি ট্রাক্টর এবং ৪৭টি পঙ্গপাল নিয়ন্ত্রক যান মোতায়েন করা হয়েছে বিভিন্ন স্থানে। দেশে পঙ্গপালের হানা রুখতে কৃষি মন্ত্রককে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে অসামরিক বিমান পরিবহণ মন্ত্রক। 

ইতিমধ্য়েই রাজস্থান সহ পাঞ্জাব, গুজরাট, মধ্যপ্রদেশ ও মহারাষ্ট্রে হানা দিয়েছে পঙ্গপালের দল। সেই সমস্ত রাজ্যের বিভিন্ন অংশের ওপর ড্রোনের মাধ্যমে নজর রাখা হচ্ছে। তবে এরপর পঙ্গপাল উত্তরপ্রদেশেও হানা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। ওড়িশা, বিহারের মতো রাজ্যকেও এবিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে কেন্দ্রের তরফে। এমনকি বাংলাতেও এই পতঙ্গ হানা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons