করোনা ঠেকাতে আজীবন লকডাউন সম্ভবপর নয়: অরবিন্দ কেজরিওয়াল

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : দিল্লি “করোনা ভাইরাসকে পিছনে ফেলে চার ধাপ এগিয়ে গেছে”, এমনটাই দাবি করলেন সেরাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। যেখানে দেশের রাজধানীতে রোজই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা  সংক্রমণ সেখানে আপ প্রধানের মন্তব্যে অনেকেই অবাক হয়েছেন সকলেই। “আমি আপনাদের সকলকে আশ্বস্ত করে জানাচ্ছি যে দিল্লি সরকার করোনা ভাইরাসকে পিছনে ফেলে চার ধাপ এগিয়ে গেছে”, শনিবার এক ভিডিও কনফারেন্সে এই কথা বলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী। “ভাইরাসকে ঠেকাতে লাগাতার লকডাউন চালিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়”, একথাও বলেন কেজরিওয়াল। করোনা ভাইরাসকে রুখতে দেশ জুড়ে ২৫ মার্চ থেকে টানা লকডাউন চলছে। এর ফলে থমকে গেছে সারা দেশের অর্থনীতি।

“আমরা একমত যে শহরগুলোতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা বিরাট পরিমাণে বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে এনিয়ে আমাদের আতঙ্কিত হওয়া উচিত না। এই পরিস্থিতিতে আমি তখনই উদ্বিগ্ন হবো যদি দেখতে পাই যে করোনা আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুর সংখ্যা বাড়ছে  এবং যদি দেখি যে রাজ্যের হাসপাতালগুলোতে বেডের ঘাটতি আছে”, বলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল।

স্থায়ীভাবে লকডাউন চালিয়ে যাওয়া কোনও সমাধানের পথ নয়। জীবনে থেমে থাকলে চলবে না, সমস্ত সতর্কতা অবলম্বন করে এবার করোনা ভাইরাসকে সঙ্গে নিয়েই এগোতে হবে বলে, স্পষ্টভাবে শনিবার একথাই জানান দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী।

লকডাউনের মধ্যেই দেশে প্রতিদিনই লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনা ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা। প্রতিদিনই যেন নতুন নতুন রেকর্ড গড়ছে কোভিড- ১৯। এখনও পর্যন্ত সবচেয়ে বড় লাফ দিল ওই নাছোড় ভাইরাস, গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা  আক্রান্ত হলেন ৭,৯৬৪ জন, আর একদিনের মধ্যে ওই রোগের জেরে মৃত্যু হল ২৬৫ জনের। সব মিলিয়ে ভারতে মোট আক্রান্ত বেড়ে ১.৭৩ লক্ষে পৌঁছলো, এর মধ্যে মৃত্যু হয়েছে ৪,৯৭১ জনের। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রকের সাম্প্রতিক পরিসংখ্যান অনুসারে ভারতে মোট করোনা আক্রান্ত ১,৭৩,৭৬৩ জন মানুষ।

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons