করোনায় মৃত্যু মোস্ট ওয়ান্টেড ডন দাউদের, নেটদুনিয়ায় শুরু জল্পনা

নিউজটাইম ওয়েবডেস্ক : এতদিন ভারতীয় গোয়েন্দাদের চোখে ধুলো দিয়েছেন ঠিকই কিন্তু করোনার কবল থেকে মিললনা মুক্তি। মারণ ভাইরাসের কামড়ে এবার মৃত্যু হল কুখ্যাত আন্ডার ওয়ার্ল্ড ডন দাউদ ইব্রাহিমের। এই খবর প্রকাশ পাওয়ার পরেই দেশজুড়ে শুরু হয়েছে তীব্র হইচই। 

সম্প্রতি করোনা আক্রান্ত হয়ে করাচির লিয়াকত সামরিক হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন দাউদ। করোনা আক্রান্ত হয়ে তাঁর সাথেই ওই হাসপাতালে ভর্তি হন দাউদ ইব্রাহিমের স্ত্রীও। গোয়েন্দা সুত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাতে করোনায় আক্রান্ত সংক্রমণের জেরে মৃত্যু হয়েছে মুম্বই ধারাবাহিক বিস্ফোরণের অন্যতন চক্রী দাউদের। শনিবার সকালে তাঁর মৃত্যুর খবর প্রকাশ্যে আসে। যদিও তাঁর মৃত্যু প্রসঙ্গে ইসলামাবাদের তরফে কোন মন্তব্য করা হয়নি। নয়াদিল্লিও কোন বিবৃতি জারি করেনি। তবে ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে দাউদের মৃত্যুর খবর।

এদিকে দাউদের ভাই আনিস ইব্রাহিমের দাবি করেন, তাঁর দাদা বা বৌদি কারও শরীরেই করোনার সংক্রমণ মেলেনি।  এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে দাদা দাউদ ইব্রাহিমের মৃত্যুর খবর উড়িয়ে দিয়েছেন ভাই আনিস। তিনি জানান ৬৪ বছরের ডন এখন সুস্থ রয়েছেন। অন্যদিকে দাউদের সমস্ত রক্ষী  সহচরদের কোয়ারেন্টাইনে পাঠানোয় শুরু হয়েছে জল্পনা।

সপরিবারে পাকিস্তানে লুকিয়ে ছিলেন দাউদ। করাচির সেনা ব্যারাকের অভিজাত এলাকায় ক্লিফটন হাউসে ১৯৯৩-এর মুম্বই বিস্ফোরণের মূল চক্রীর বসবাস ছিল। করাচির ওই এলাকায় দাউদের একাধিক গতিবিধির ছবি তুলে ধরে দেশি-বিদেশি নানা সংবাদমাধ্যম। কিন্তু তা মানতে রাজি নয় পাকিস্তান। অমনকি পাকিস্তানে তাঁর উপস্থিতির প্রমান বহুবার তুলে ধরেছে দিল্লি। 

 

 

Inform others ?
Show Buttons
Hide Buttons